reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ২০ জুন, ২০২২

স্বামীকে মাদক ছাড়াতে পারেননি, তাই খুন

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার নরসুন্দর পঙ্কজ শীল (৩৫) হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটিত হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানান, স্বামীকে মাদকের নেশা থেকে ফেরাতে না পারা ও অন্য নারীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের কারণে ভাতিজাদের সঙ্গে নিয়ে সোনালী রানী শীল (২৭) স্বামীকে হত্যা করেন।

নলছিটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, রবিবার (১৯ জুন) দুপুরে পঙ্কজের বন্ধু রাজীবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়। তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতেই পঙ্কজের স্ত্রী সোনালী রানী শীলসহ তার দুই ভাতিজাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তারা পুলিশের কাছে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানান ওসি।

গ্রেপ্তার দুই ভাতিজা হলেন বিশ্বজিৎ শীল (২২) ও শুভ শীল (২০)। তারা সবাই উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়নের বাড়ইকরণ গ্রামের বাসিন্দা।

পঙ্কজের স্ত্রী সোনালীর বরাত দিয়ে পুলিশ আরও জানায়, খুন হওয়া পঙ্কজ প্রায়ই নেশা করতেন। এমনকি নিজের দুই শ্যালকের স্ত্রীদের নেশাদ্রব্য খাইয়ে ধর্ষণের চেষ্টাও চালিয়েছেন। এ ছাড়া পঙ্কজ প্রায়ই তার স্ত্রীকে মারধর করতেন। তাই শ্যালকের ছেলেরা ও স্ত্রী সোনালী সংঘবদ্ধ হয়ে পঙ্কজকে হত্যা করেন।

প্রসঙ্গ, ১১ জুন সন্ধ্যায় নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়নের পশ্চিম বাড়ইকরণ গ্রামের শহীদিয়া খাল থেকে পঙ্কজ শীলের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরের দিন নলছিটি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহত পঙ্কজের বাবা নরেন্দ্র চন্দ্র শীল।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
খুন,স্বামী,মাদক
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close