reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ১৯ জুন, ২০২২

সিলেটে মধ্যরাতে ডাকাত আতঙ্কে রাস্তায় বানভাসিরা

ছবি : সংগৃহীত

সিলেট নগরীর শামীমাবাদ, কানিশাইল ও আখালিয়া ঘাট এলাকায় ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শনিবার (১৯ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে এসব এলাকার মসজিদের মাইকে ডাকাত প্রবেশের কথা জানিয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার ঘোষণা দেওয়া হয়। এই ঘটনার পর স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় মানুষের চিৎকার-চেচামেচির শব্দ আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই বাসা-বাড়ি থেকে রাস্তায় নেমে আসেন। তবে পুলিশ বলছে, ডাকাত দলের হানার ঘটনা গুজব।

রাতে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)আলী মাহমুদ বলেন, আমরা খবর পেয়ে এসেছি। আপাতত এর বাইরে আর কিছু জানি না। পরে বিস্তারিত জানাব।

তিনি বলেন, কেউ আতঙ্কিত হবেন না। পুলিশ মাঠে আছে। রাত সোয়া ৩টার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোথাও ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি। আপনারা চোখ-কান খোলা রাখবেন। আমরা দিনরাত ২৪ ঘণ্টা আপনাদের সেবায় নিয়োজিত আছি। কোথাও কোনও ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জানাবেন। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ দিয়ে আপনাদের পাশে আছি।

এ দিকে রাতে সিলেট নগরীর মসজিদে মসজিদে মাইকিংয়ের পর বেশিরভাগ এলাকার মানুষ লাঠিসোঁটা, পাইপ, রড নিয়ে রাস্তায় নেমে আসেন। অপরিচিত কাউকে পেলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন।

সিলেট নগরীর মধুশহীদ এলাকার বাসিন্দা জাহেদ আহমেদ রুবেল বলেন, আমরা ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। মসজিদে মাইকিংয়ের পর আমাদের এলাকার মানুষজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। পরে আমাদের এলাকার যুবসমাজ ও মুরব্বিরা মিলে এলাকায় পাহারা বসাই।

একই ঘটনা ঘটে নগরীর ভাতালিয়া এলাকায়। সেখানকার বাসিন্দা রাজু আহমদকে দেখা যায়, বাঁশ হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা আত্মরক্ষার্থে মধ্যরাতে রাস্তায় লাঠি হাতে পাহারা দিচ্ছি। এমনিতেই বন্যা আমাদের ক্ষতি করে দিয়েছে। তারমধ্যে যদি ডাকাতরা হানা দেয়, তাহলে আমাদের অস্তিত্ব থাকবে না। তাই রাতে না ঘুমিয়ে পাহারা দিচ্ছি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও বিভিন্নজনকে সিলেটে ডাকাতির ঘটনায় পোস্ট দিতে দেখা গেছে।

নাইমুল ইসলাম মাহিন নামের একজন পোস্ট দিয়েছেন, ‘সিলেটের তেমুখী সাহাবের গাওয়ে প্রচুর ডাকাত আক্রমণ করেছে। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ, র‌্যাবের সহযোগিতা কামনা করছি।’

সমাপ্তি মৃন্ময়ী নামের একজন পোস্ট দিয়েছেন, ‘আমাদের বাসা পশ্চিম ভাটপাড়া, মোজরটিলা। আমাদের বাসার পাশে ডাকাত আসছে। ৯৯৯-এ কল দিচ্ছি, পাচ্ছি না।’

তাহমিদুল ইসলাম নামের একজন পোস্ট দিয়েছেন, ‘বন্যা কবলিত সিলেট আর সুনামগঞ্জে গণহারে ডাকাতি হচ্ছে।’

কাউসার আলম নামের একজন তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, ‘আশপাশের দু’তিনটা মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিচ্ছে, এলাকায় ডাকাতের আগমন ঘটছে। সবাই বাইরে চলে আসেন! সাবধানে থাকেন। মানুষের চিল্লাচিল্লি শোনা যাচ্ছে। (তেমুখির আশপাশে)’

অবশ্য এসব ঘটনার কোনও সত্যতা মেলিনি। বাস্তবে কোথাও ডাকাতি হয়েছে বলে প্রমাণ পায়নি পুলিশ। যে কারণে ডাকাত আতঙ্ক ছাড়ানোকে গুজব বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সিলেটে ২৮২ মিলিমিটার বৃষ্টি, চলবে আরও দুদিন এ দিকে সিলেটে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৮২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। রবিবারসহ দুদিন বৃষ্টিপাতের এ ধারা অব্যাহত থাকতে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।

শনিবার রাতে আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মো. শাহীনুল ইসলাম জানান, সিলেটে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৮২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। আগামী দুদিন বৃষ্টিপাতের এ ধারা অব্যাহত থাকতে পারে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
সিলেট,ডাকাত,ডাকাত আতঙ্ক
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close