আমিনুল ইসলাম রানা, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি

  ২৩ মে, ২০২২

দৌলতদিয়া ঘাট আধুনিকায়নে অনিশ্চয়তা

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় পদ্মা ও যমুনা নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। বর্ষা মৌসুমের আগেই দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটকে আধুনিক নৌ বন্দরে উন্নত করণের কথা থাকলেও এখনও কাজ শুরু হয়নি। দ্রুত কাজ শুরুর সম্ভাবনাও দেখা যাচ্ছে না। এ নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

সূত্র বলছে, দৌলতদিয়া ঘাটের পশ্চিমে দেবগ্রাম প্রান্তে ৬ কিলোমিটার এবং পাটুরিয়া ঘাটে ২ কিলোমিটার স্থায়ীভাবে আধুনিক করণ করতে গত বছরের জানুয়ারিতে ৬৮০ কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে অনুমোদন হয়। কাজটি বাস্তবায়নের জন্য রাজবাড়ী পাউবোকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ে ঘাটের কাজ শুরু করতে না পারায় নির্মাণ সামগ্রীর দাম বেড়ে যায়। ফলে প্রকল্পের ব্যয় হবে ১ হাজার থেকে ১২'শ কোটি টাকা। রাজবাড়ী পাউবো ও বিআইডব্লিউটিএ সূত্র এ তথ্য জানায়। ফলে কাজে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। সরেজমিনে দেখা যায়, দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট ও লঞ্চ ঘাট এলাকায় ভাঙন এখনো অব্যাহত। লঞ্চ ঘাটের বিপরীতে পশ্চিমে লালু মন্ডল পাড়া থেকে নদীর তীরবর্তী দেবগ্রাম ইউনিয়নের অন্তর মোড় পর্যন্ত প্রায় ৭ কিলোমিটার এলাকায় নতুন করে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এক মাস ধরে পদ্মার এই ভাঙনে প্রায় অর্ধশত পরিবার ভিটামাটি ছেড়ে অনত্র চলে গেছে। নদীতে বিলিন হয়েছে কয়েক’শ বিঘা কৃষি জমি। ভাঙন ঝুুঁকিতে রয়েছে দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাট, ফেরি ঘাট, টার্মিনাল, বাজার, স্কুল, মাদ্রাসাসহ ৮টি গ্রামের প্রায় ২ হাজার পরিবার।

লালু মন্ডল পাড়ার কৃষক সেলিম বলেন, আমার বাড়িসহ ৫ বিঘা জমি ছিল। ঘরবাড়িসহ ৩ বিঘা আবাদি জমি পদ্মার ভাঙনে শেষ হয়ে গেছে। এখন নদীর তীরবর্তী ২ বিঘা জমি আছে। সেখানে কোনোরকম একটি ছাপরা ঘর করে আছি।

এ বছর যদি নদী শাসনের কাজ না করে তাহলে অনত্র চলে যেতে হবে বলেও জানান তিনি।

রাজবাড়ী পাউবো উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান অংকুর বলেন, আমরা নকশা করে বিআইডব্লিউটিএ-তে দিয়েছি। তারা নকশাটি ঠিক আছে কি-না; যাচাইয়ে বুয়েটে পাঠিয়েছে। সেখান থেকে নকশাটি অনুমোদন হলে ঘাট উন্নয়নের কাজ শুরু হবে।

নির্দিষ্ট সময়ে কাজ না করায় কাজ করতে না পাড়ায় ব্যয় বেড়ে দ্বিগুণ হবে। এমন তথ্য দিয়ে প্রকল্প পরিচালক ও বিআইডাব্লিউটিএ-্এর তত্ত্বাবধায়ক পরিচালক মোহাম্মদ তারিকুল হাসান বলেন, বুয়েট থেকে নকশা অনুমোদন হয়নি। জমি অধিগ্রহণের কাজও অসম্পন্ন। এ সব কাজ সম্পন্ন হলে ঘাট আধুনিক করণ উন্নয়নের কাজ শুরু হবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
দৌলতদিয়া ঘাট,রাজবাড়ী,গোয়ালন্দ,দেশ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close