মো. আবু সাইদ খোকন, আমতলী (বরগুনা)

  ০৯ ডিসেম্বর, ২০২১

দেওয়ানি আদালত না থাকায় বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি

ফাইল ছবি

বরগুনার আমতলীতে দেওয়ানি আদালত না থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে আমতলী-তালতলী উপজেলার মামলা-মোকোদ্দমার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সাধারণ মানুষ। প্রমত্তা পায়রা নদী পাড়ি দিয়ে মামলা-মোকোদ্দমার জন্য যেতে হয় জেলা শহরে অবস্থিত সহকারী জজ আদালতে।

এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন জমি-জমার মামলার সঙ্গে জড়িত সাধারণ মানুষ । ২০১২ বরগুনা জেলা জজ আমতলীতে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের পক্ষে প্রতিবেদন দিলেও নয় বছরেও তা আলোর মুখ দেখেনি। এতে স্থবির হয়ে পড়েছে আদালত পুনঃস্থাপনের কার্যক্রম।

জানা গেছে, ১৯৮২ সালে আমতলী-তালতলী নিয়ে আমতলী উপজেলা গঠিত হয়। উপজেলা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই আমতলীতে (দেওয়ানি) আদালত স্থাপিত হয়। ওই সময় থেকে খুব ভালোভাবেই চলছিল আমতলীর আদালত। ১৯৯১ সালে রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের ফলে কোনো কারণ ছাড়াই আমতলী আদালত প্রত্যাহার করে বরগুনা জেলা শহরের সঙ্গে সংযুক্ত করে তৎকালীন বিএনপি সরকার। এতে সুবিধাবঞ্চিত হয় দুই উপজেলার বিচারপ্রার্থীরা।

মুনসেফ আদালত বরগুনায় সংযুক্ত হওয়ার এক বছরের মাথায় ১৯৯২ সালে পায়রা নদী ও রাখাইন অধ্যুষিত এলাকা বিবেচনা করে ফৌজদারি আদালত পুনরায় আমতলীতে শুরু হয়। দেওয়ানি আদালতের কার্যক্রম আর শুরু হয়নি।

বর্তমানে বরগুনা দেওয়ানি আদালতে আমতলী-তালতলীর প্রায় সাড়ে তিন হাজার মামলা চলমান রয়েছে। এদিকে ২০১২ সালে তৎকালিন আইন প্রতিমন্ত্রী এ্যাড. কামরুল ইসলাম আমতলী আদালত পরিদর্শনে আসেন। তিনি আদালত পরিদর্শন শেষে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের আশ্বাস দিয়ে বরগুনা জেলা জজের কাছে প্রতিবেদন চান। তৎকালীন জেলা জজ আমতলীতে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের পক্ষে প্রতিবেদন দেন বলে জানান, আমতলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বরগুনা জেলা আইনজীবি সমিতির সিনিয়র আইনজীবি অ্যাডভোকেট এমএ কাদের মিয়া, কিন্তু প্রতিবেদন দাখিলের ৯ বছর পেরিয়ে গেলেও আমতলীতে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের আলোর মুখ দেখেনি। স্থবির হয়ে পড়ে আদালত পুনঃস্থাপনের কার্যক্রম। ভুক্তভোগীরা দ্রুত আমতলীতে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের দাবি জানিয়েছেন।

বরগুনা আইনজীবী সমিতির সহ-সভাপতি অ্যাড. মো.দেলোয়ার হোসেন বলেন, মানুষের কষ্ট বিবেচনা করেই আমতলীতে দেওয়ানি আদালত পুনঃস্থাপনের চেষ্টা করে আসছি। ইতোমধ্যে আইন মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি।

আমতলী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীরীগের সাধারন সম্পাদক মো. মতিয়ার রহমান মুঠোফোনে বলেন, সম্প্রতি আমতলী পৌরসভার হলরুমে দেওয়ানি আদালত আমতলীতে স্থাপনের দাবিতে পৌরসভার অডিটরিয়ামে আমতলীর সুশীল সমাজ, আইনজীবী, সাংবাদিকদের নিয়ে নাগরিক মতবিনিময় সভা করা হয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আমতলী,বরগুনা,দেওয়ানি আদালত,ভোগান্তি
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close