গাজী শাহাদত হোসেন ফিরোজী, সিরাজগঞ্জ

  ০৯ ডিসেম্বর, ২০২১

বেশি মুনাফার আশায় সরিষা চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

করোনাকালে প্রতিটি মানুষের মতো কৃষকরাও ছিলেন আতংকের মধ্যে। আজ সেই আতংক কাটিয়ে উঠে এবং ক্ষতিপূরণ পুষিয়ে নেওয়ার লক্ষে রাত-দিন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তাদের কৃষি জমিতে সরিষা ফলানোর জন্য।

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, বেলকুচি,কামারখন্দ, রায়গঞ্জ, চৌহালী ও সিরাজগঞ্জ সদরের বিস্তৃর্ণ এলাকাজুড়ে এখন হলুদ সরিষার ফুলের সমারোহ। এ সকল এলাকায় চলাচলকারীদের নজর কেড়েছে সরিষার হলুদ ফুল।

অতীতের তুলনায় এবার সরিষার আবাদ অনেক ভালো। তাছাড়া সরকারিভাবে কৃষকের মাঝে সার, বীজ, প্রদানের পাশাপাশি কীটনাশক ব্যবহারসহ কৃষি বিভাগের সার্বিক সহায়তার কারণে সরিষা উৎপাদনে কৃষকের কোনো বেগ পেতে হয়নি বলে জানান কাওয়াখোলা চরের কৃষক হুরমুজ আলী।

চৌহালী উপজেলার নদীর ভাঙনে সব হারিয়ে আজ অন্যের জমি বর্গা নিয়ে উমারপুর গ্রামের কৃষক আব্দুল কুদ্দুস সরিষার আবাদ প্রসঙ্গে জানান, আবহাওয়া এখন পর্যন্ত ভালো থাকায় সরিষা আবাদের কোনো ক্ষতি হয়নি। তিনি ব্যাপক ফলনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সদর উপজেলার সয়দাবাদ গ্রামের কৃষক মতলব মুন্সী বলেন, আবহাওয়া ভালো থাকলে এবার প্রতি বিঘা জমিতে ৬/৭ মন সরিষা ঘরে তুলতে পারব। যা থেকে আমি অনেকটাই লাভবান হবো।

এ বছরে রায়গঞ্জে উপজেলায় সরিষা উৎপাদনের লক্ষ মাত্রা ছিল ১৩৫০ হেক্টর জমিতে। কিন্তু তা বৃদ্ধি পেয়ে আবাদ হয়েছে ৩৫৫০ হেক্টর জমিতে। সরিষা উৎপাদনে আমরা কৃষকদের সার্বক্ষণিকভাবে উদ্ভুদ্ধ করেছি। যাতে অন্যান্য ফসলের মতো এই সরিষা উৎপাদনের মধ্যে দিয়ে কৃষকরা তাদের ভাগ্যের চাকা ঘুড়াতে পারেন। তাই লক্ষ্য মাত্রার চেয়ে অধিক জমিতে সরিষা উৎপাদন হয়েছে বলে জানান রায়গঞ্জের কৃষি অফিসার দেলোয়ার হোসেন।

তিনি আরও জানান, কয়েক দফা বন্যার পানি এলেও তা দ্রুত মাঠ থেকে নেমে যায়। এ জন্য মাঠের মধ্যে জলাবদ্ধতা না থাকায় কৃষকরা সরিষার আবাদ করেছে। তাছাড়া কর্মকর্তারা সব সময় মাঠে থেকে কৃষককে সব ধরনের সহযোগিতা করেছেন, তাই উপজেলায় বাম্পা ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে সরিষার।

এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপপরিচালক আবু হানিফ জানান, এ বছরে সিরাজগঞ্জের ৯টি জেলায় সরিষা চাষের লক্ষ মাত্রা ছিল ৪৯,৫৫০ হেক্টর জমিতে। কিন্তু তা বৃদ্ধি পেয়ে ৫৩.৯৭৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে। সরিষা আবাদে স্বল্পপরিশ্রমে কৃষকরা অধিক লাভবান হবেন বলে জানান তিনি।

সরকারি সুযোগ বৃদ্ধি, উৎপাদনে কম খরচ ও কম পরিশ্রমে বেশি মুনাফা লাভের আশায় সরিষা চাষে ঝুঁকেছেন কৃষকরা। তাই তারা ইরি, বোরো, আমন, ভুট্টা বিনা চাষে রসুন ও তোরমুজ চাষের পাশাপাশি এবার অধিক সরিষা চাষে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সিরাজগঞ্জের কৃষকরা।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কৃষক,সরিষা চাষ,মুনাফা,সিরাজগঞ্জ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close