তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১

নৌকা না পেয়ে পদত্যাগ, জনতার প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার ৮ নং দেশীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি জ্ঞানেন্দ্র নাথ বসাক মনোনয়ন না পেয়ে দলীয় পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর)) তার শারিরীক ও পারিবারিক কারণ দেখিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক বরাবর লিখিত পদত্যাগপত্র জমা দেন। এর পরপরই তিনি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউপি চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন ফরম উত্তোলন করেন। এ নিয়ে তাড়াশে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

পদত্যাগপত্র প্রাপ্তির কথা নিশ্চিত করেছেন তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত কর্মকার।

রিটানিং অফিসারের কার্যালয়ের সূত্র জানায়, দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় তাড়াশ উপজেলাতেও ৬ষ্ঠ ধাপে আগামী ৫ জানুয়ারি চারটি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। অন্য ৪ টি ইউনিয়ন পৌর সভার সীমানা জটিলতা থাকায় আপাতত নির্বাচন হচ্ছে না। এ কারণে উপজেলার তালম, দেশীগ্রাম,সগুনা ও মাগুরা ইউনিয়ে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের জন্য চলছে জোর প্রচারণা।

সূত্র আরো জানায়, দেশীগ্রাম ইউনিয়নটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি অধ্যূষিত অঞ্চল। এ ইউনিয়নের ধলাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা নৃ-গোষ্ঠির বসাক পরিবারের সন্তান জ্ঞানেন্দ্রনাথ বসাক, ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি শুরু করেন।

১৯৯৫-২০০১ সাল পর্যন্ত দেশীগ্রাম ইউনিয়ন তিনি ছাত্রলীগের সভাপতি, ২০০৩-২০১২ সাল পর্যন্ত তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য,২০১২-২০২০ সাল দেশীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ২০২০ সালে কাউন্সিলে কাউন্সিলারদের প্রত্যক্ষ ভোটে দেশীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

বিগত ২০১৬ সালে ইউপি নির্বাচনে জ্ঞানেন্দ্রনাথ বসাক দেশীগ্রাম ইউনিয়ন থেকে দলীয় মনোনয় চাইলেও তিনি দ্বিতীয় অবস্থান থেকে মনোয়ন বঞ্চিত হোন। এবং দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচন করেন।

পরবর্তী পাঁচ বছর তিনি বিভিন্ন জনহিতকর কাজ সহ দলীয় বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নিজেকে প্রস্তুত করেন।

কিন্ত আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয় বোর্ড তাকে মনোনয়ন না দিয়ে, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দসকে মনোনয়ন দেন। এ নিয়ে দেশীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তাদের দাবি জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেওয়ায় নেতাকর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। এ নিয়ে তারা গত ৪ ডিসেম্বর মাঝদক্ষিণা বাজারে এক প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। সেখানে তারা দাবি তোলেন জ্ঞানেন্দ্র নাথ বসাক কে জনতার প্রার্থী হওয়ার। এরই মাঝে তিনি দলীয় পদ থেকে পদত্যাগ করায় তা বাস্তবে রুপ পেল।

এ প্রসঙ্গে জ্ঞানেন্দ্রনাথ বসাক বলেন, আমি বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত সৈনিক। কিন্তু শারিরীক ও পারিবাকি কারণে দলীয় পদ থেকে পদ ত্যাগ করেছি।

নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন, আমি আমার ইউনিয়নবাসীর সাথে আছি এবং থাকবো। নির্বাচন আমার গণতান্ত্রিক অধিকার। জনতার রায়ই বলে দিবে আমার জনপ্রিয়তা।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
তাড়াশ,সিরাজগঞ্জ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close