কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি

  ০৪ ডিসেম্বর, ২০২১

স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী গ্রেপ্তার

স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে স্বামী ইমনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার (৪ ডিসেম্বর) ভোর পাঁচটার দিকে গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বের গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী পলাতক থাকলেও দুপুরের দিকে তাকে পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর থানার বরমী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত ইমন(২০) শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরকুল এলাকার এমদাদুল হকের ছেলে।

মারুফা শ্রীপুর উপজেলার বরকুল এলাকায় তার নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়াশোনা করতো। মারুফা(১৪) কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বের গ্রামের মাসুদের মেয়ে। গত আটমাস আগে প্রেমের সম্পর্কে মারুফাকে কোর্টের মাধ্যমে বিয়ে করেন ইমন। পরে সম্পর্কটি পারিবারিকভাবে মেনে নিলেও ইমনের মা মাঝে মধ্যে মারুফাকে অত্যাচার করত।

গত দুই মাস আগে ইমনের মা মারুফাকে চুরির অপবাদ দিলে মারুফা বাপের বাড়িতে চলে যায়। তখন থেকে ইমন শশুর বাড়িতেই মাঝে মধ্যে আসা যাওয়া করতো।

শুক্রবার সকালে মারুফা কে আনার জন্যে ইমন তার শ্বশুর বাড়িতে যায় এবং কোন অভিভাবক ছাড়া শশুর বাড়িতে আসবে না বলে মারুফা জানায়। একপর্যায়ে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। পরে রাতের খাবার খেয়ে দুজনে এক সাথে শুয়ে পড়ে। পরে রাতের কোনো এক সময় মারুফাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায় সে।

মারুফার বাবা মাসুদ ভোর সকাল পাঁচটার দিকে ঘুম থেকে মারুফার ঘরের দরজা খোলা দেখতে পেয়ে ঘরে প্রবেশ করে এবং তার মেয়ের মৃতদেহ দেখতে পান। পরে পুলিশকে খবর দিলে কাপাসিয়া থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এএফএম নাছিম ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করে জানান, গৃহবধূ হত্যার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্ত ইমনকে পার্শ্ববর্তী উপজেলার বরমী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
স্ত্রীকে হত্যা,স্বামী গ্রেপ্তার
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close