দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি

  ০২ ডিসেম্বর, ২০২১

বাদীকে আসামির নাম বাদ দিতে চাপ দিচ্ছেন এসআই

ছবি : এসআই অরুন কুমার বিশ্বাস

কুষ্টিয়ায় বাদীকে ৭নং হোগলবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সাদীপুর গ্রামের মৃত নজের আলীর ছেলে মো. আসাদ আলী নামের এক আসামির নাম কর্তনের জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন এসআই। এ অভিযোগ উঠেছে দৌলতপুর থানায় এসআই অরুন কুমার বিশ্বাসের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, গত ২৮শে নভেম্বর তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে আসাদ আলী তালা মার্কা প্রতীকের সমর্থক হিসেবে নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা করেন এবং নির্বাচনে তালা মার্কা প্রতীক জয়লাভ করে। সে কারণে টিউবয়েল মার্কা প্রতীকের সমর্থকরা ক্ষুদ্ধ হয়ে আসাদ আলীর ঘর বাড়ি ভাঙচুর করে তার টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। ঘরবাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ এনে থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ্য করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন আসাদ আলী। আর সেই অভিযোগের তদন্তভার পড়ে এসআই অরুন কুমার বিশ্বাসের উপর। তদন্ত না করে তিনি অভিযোগকারী বাদীকে অভিযোগের ৬নং আসামি মো. হুমায়নের (৬৮) এর নাম বাদ দেওয়ার জন্য এলাকা থেকে তুলে নিয়ে থানায় বসিয়ে মানসিক চাপ প্রয়োগ করেন এবং বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখান।

বাদীকে আসামির নাম কর্তন করার জন্য থানায় নিয়ে চাপ প্রয়োগ করেছেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে এসআই অরুন কুমার বিশ্বাস বলেন, আপনি কিভাবে জানলেন আমি চাপ প্রয়োগ করেছি। আমি কোন চাপ প্রয়োগ করিনি বলে তিনি ১মিনিট পরে আপনাকে ফোন দিচ্ছি বলে সংযোগ কেটে দেন। পরে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানায়, বাদীকে এসআই অরুন কুমার বিশ্বাস মোবাইল ফোনে কল করে বলেন সাংবাদিক আমাকে ফোন দিয়েছিল, আপনি সাংবাদিককে কিছু বলেছেন কিনা? তিনি আরও বলেন, আপনি সাংবাদিকের সামনে গিয়ে মোবাইল রেকর্ড চালু রেখে বলবেন আমি আপনাকে তুলে নিয়ে আসিনি, আপনাকে কোন প্রকার জোর করিনি। এবং সেই রেকর্ড টা আমাকে পাঠাবেন।

দৌলতপুর থানার (ওসি) এমএম জাবীদ হাসান বলেন, অভিযোগের ব্যাপারটা আমার জানা আছে কিন্তু বাদীকে তুলে এনে আসামির নাম কর্তন এবং চাপ প্রয়োগের বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
এসআই,আসামি,বাদী,নির্বাচন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close