তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ২৭ নভেম্বর, ২০২১

চলনবিলে বিনা চাষে রসুন চাষ, মূল্য কমে হতাশা

চলনবিল অঞ্চলে শুরু হয়েছে বিনাচাষে রসুন লাগানোর কাজ। কম খরচে বেশি লাভবান হওয়ার আশায় প্রতি বছরই এ অঞ্চলে কৃষকেরা নিজের জমি ও বর্গা নিয়ে রসুন আবাদ করেন।

কৃষকদের অভিযোগ, ফলন ভালো হওয়ার পরও বাজারে বিক্রির সময় কাঙ্খিত মুল্য না পাওয়ায় লোকসান গুণতে হয় তাদের। তাই এ চাষে অনেকটাই আগ্রহ হারাচ্ছেন তারা।

বন্যার পানি নেমে যাওয়ায় জেগে উঠেছে চলনবিল অঞ্চলের ফসলের মাঠ। তাই মাঠের নরম কাঁদা মাটিতে বিনাচাষে রসুন লাগাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ অঞ্চলের কৃষক-কৃষাণীরা। বিনা চাষে রসুন লাগাতে কম খরচে বাড়তি লাভের আশায় কৃষকরা এ পদ্ধতি বেছে নিয়েছেন তারা। তবে বরাবরের মতো বাজার দর ভাল না থাকায় এ চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষকরা।

আর চলনবিল অঞ্চলের রসুন আবাদকে ঘিরে এলাকার হাজার হাজার বেকার যুবক ও নারী-পুরুষের হয়েছে কর্মসংস্থান। তবে কৃষকরা বলছেন, সারাবছর কষ্ট করে রসুনের ভালো ফলন ফলালেও, কাঙ্খিত মূল্য না পাওয়ায় প্রতি বছরই তাদের লোকসানের মুখে পড়তে হয়। তাই বাজার দর বৃদ্ধিতে সরকারের সু-দৃষ্টি কামনা করেন এ অঞ্চলের কৃষক।

তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিসার লুৎফুন্নাহার লুনা বলছেন, রসুনের আবাদ বৃদ্ধিসহ ভালো ফলনের জন্য কৃষকের পাশে থেকে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন কৃষি কর্মকর্তাগণ।

চলতি মৌসুমেই চলনবিল অঞ্চলের শুধু তাড়াশ উপজেলাতেই ৫শ ১৭ হেক্টর জমিতে রসুনের আবাদের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। কাঙ্খিত বাজার মূল্য পেলে আগামীতে এ আবাদ লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছে কৃষি বিভাগ।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
তাড়াশ,সিরাজগঞ্জ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close