ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

  ১২ অক্টোবর, ২০২১

তলপেটে লাথি, মরেই গেলেন অন্তঃসত্ত্বা গোলাপী

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে স্বামীর নির্যাতনে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (১১ অক্টোবর) বিকালে উপজেলার শিলখুড়ি ইউনিয়নের শালঝোড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মঙ্গলবার কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠিয়েছে। 

জানা গেছে, উপজেলার শিলখুড়ি ইউনিয়নের উত্তর ধলডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল গফুরের মেয়ে গোলাপী বেগমের (২৫) সাথে প্রায় ৭/৮ বছর পূর্বে একই ইউনিয়নের শালঝোড় গ্রামের আব্দুস ছামাদের ছেলে কফিল উদ্দিন (২৮)-এর সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পরপর দুটি সন্তান হলেও শৈশবেই মারা যায়। এ কারণে তাদের মধ্যে বনিবনা ছিল না। গত সোমবার বিকালে গোলাপীর সাথে স্বামী কফিলের ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে কফিল অন্তঃসত্ত্বা গোলাপীকে শারীরিক নির্যাতন ও তলপেটে লাথি মারলে তিনি জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে স্বপন নামের স্থানীয় এক গ্রাম্য চিকিৎসককে দিয়ে তার প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি হলে গোলাপীকে সোমবার সন্ধ্যায় ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নাঈমা হক রিফাত জানান, গোলাপী বেগমকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।

ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, ঘটনা শোনার পর লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে মামলা করা হবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ভূরুঙ্গামারী,নির্যাতন,গৃহবধূর মৃত্যু
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close