কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

  ১০ অক্টোবর, ২০২১

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় চিকিৎসকের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া মিরপুর থানার একটি মাদক মামলায় সরকারি টিবি হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আসাদুজ্জামান ওরফে ফিরোজের (৪১) ১৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ৫০ হাজার টাকার জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রবিবার দুপুর ২টায় কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক তাজুল ইসলাম আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

ডা. মো. আসাদুজ্জামান ওরফে ফিরোজ ভেড়ামারা উপজেলার গোলাপনগর বাহাদুরপুর কারিকর পাড়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি কুষ্টিয়া সরকারি টিবি হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার।

তবে এ মামলার অপর দুই আসামির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

আদালতের মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৭টার দিকে মিরপুর উপজেলা জিয়া সড়কে মাদক উদ্ধার অভিযান চলাকালে সড়কস্থ নাহারুল মালিথার স্বত্ত্বাধীন মিলের মোটর ঘরের ভিতর তল্লাশি চালানো হয়। এসময় সেখান থেকে ডা. মো. আসাদুজ্জামান ওরফে ফিরোজ, জয়নাল আবেদিন নাহারুল ইসলামের কাছ থেকে দুই শ’ টি করে ১০ প্যাকেট ভর্তি মোট দুই হাজার নিষিদ্ধ ঘোষিত ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে মিরপুর থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় মিরপুর থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন বাবু বাদী হয়ে ১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা করেন।   

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৫ সালে ১৪ সেপ্টেম্বর মিরপুর থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন ৩ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে চার্জশিট দাখিল করেন আদালত।

কুষ্টিয়া জেলা দায়রা জজ আদালতের পিপি এ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মাদক সরবরাহ ও কেনা-বেচায় জড়িত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ডা. মো. আসাদুজ্জামান ওরফে ফিরোজকে (৪১) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হজার টাকা জরিমানা করা হয। অপর দুই আসামি জয়নাল আবেদিন নাহারুল ইসলামকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
চিকিৎসকের যাবজ্জীবন,মাদক মামলা,কুষ্টিয়া
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close