লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

  ১২ জুন, ২০২১

লোহাগাড়ায় গৌড়স্থান নয়াপাড়া সড়কের বেহাল দশা

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ইউনিয়নের গৌড়স্থান সিকদার পাড়া থেকে নয়াপাড়া এবং নয়াপাড়া ব্রিজ থেকে আব্দুল মতলব মুন্সির বাড়ি পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে এলাকার সাধারণ মানুষের। সড়ক নয় যেন মরন ফাঁদ, দেখার কেউ নেই।

সরেজমিনে দেখা যায়, সড়কটি সাধারণ মানুষ ও গাড়ি চলাচলের উপযোগী সড়ক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে পরিচিত। এ সড়ক দিয়ে হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। এখানে ব্যবসা বানিজ্যের অনেক সুযোগ সুবিধা থাকায় ব্যবসায়ীরা কয়েক যুগ ধরে ব্যবসা করে আসছেন।

এ সড়ক দিয়ে এলাকার লোকজন পার্শ্ববর্তী  নয়াবাজার, এম,চর হাট বাজার, লোহাগাড়া আমিরাবাদসহ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে ব্যবসা করে আসছে। তবে এই এলাকা থেকে এখনো বেশ কয়েকটি গ্রামের জনগণ চলাচল করতে অনেক ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে প্রতিনিয়নত।

এ সড়কের আশপাশে  পূর্ব পাড়া, দক্ষিণ নয়াপাড়া, চার ঘড়িয়া পাড়া, পশ্চিম পাড়াসহ আরো কয়েকটি গ্রাম রয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার এমন নাজুক চিত্র দীর্ঘদিন থেকে বহাল থাকায় ক্ষুব্দ এলাকাবাসী।

স্থানীয় আবদুর রহিম জানান, আমাদের এলাকায় সড়কটি খুবই অবহেলিত এলাকা। এই পর্যন্ত আমাদের জন-প্রতিনিধি'রা আসছে আর গেছে কিন্তু এখনো আমাদের দুঃখ-কষ্ট  যায়নি। নির্বাচনের পুর্বে বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক প্রতিশ্রুতি দিলেও অন্যান্য প্রতিশ্রুতির সাথে এ সড়কটির নাজুক অবস্থা দেখেও এড়িয়ে চলছেন নির্বাচিত প্রতিনিধিরা।

সড়কগুলো দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বর্ষা মৌসুমে হাঁটু পরিমাণ কাঁদা মাটিতে চলাচলে অতি কষ্ট পোহাতে  হয়। বিশেষ করে বড় বড় গর্তের কারণে এ সড়ক দিয়ে স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসায় পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীরা এবং রোগীসহ এলাকার জন সাধারণকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। 

পুটিবিলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজ্বী মুহাম্মদ ইউনুচ জানান, সড়কটি সংস্কারের বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তিনি আপাতত পরিষদের পক্ষ থেকে চলাচলে উপযোগী করতে কাজ করার আশ্বাস দেন। স্থানীয় এলাকাবাসী উক্ত সড়কটি দ্রুত সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

পিডিএসও/এসএম শামীম

 

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
লোহাগাড়া,চট্টগ্রাম
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close