নীলফামারী প্রতিনিধি

  ০৭ মে, ২০২১

নীলফামারীতে গাছচাপা পড়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

নীলফামারীতে ঝড়ে গাছচাপা পড়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে জেলা সদরের কুন্দুপুকুর ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ওই গ্রামের অটোবাইক চালক এনতাজুল হক (৫৩) ও তার স্ত্রী মমেনা খাতুন (৪২)। 

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১১টা ৪০ মিনিটে হঠ্যাৎ করে ঝড়োবাতাস ও শিলাবৃষ্টি শুরু হয়। এসময় চার বছরের নাতী জাহিদ হোসেনকে সাথে নিয়ে নিজ ঘরে ছিলেন এনাতজুল-মমেনা দম্পতি। এক পর্যায়ে ঘরের পিছনে থাকা আম ও মেহগিনী গাছ উপড়ে ঘরের উপড়ে পড়লে ওই দম্পতি ঘরের নিচে চাপা পড়ে নিহত হলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে যায় চার বছরের শিশু মুজাহিদ।

নিহতের বড় ছেলে মমিনুর রহমান (২৫) বলেন, তারাবীর নামজ শেষে আমার চার বছরের শিশু সন্তান মুজাহিদকে নিয়ে বাবা-মা তাদের ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাতে হঠাৎ করে ঝড়-বৃষ্টি শুরু হলে একটি আমের গাছ ও মেহগনী গাছ উপড়ে ঘরের উপর পড়ে। এতে বাবা ও মা চাপা পড়ে। তবে আমার শিশু সন্তান মুজাহিদ অখ্যত থাকে। এসময় প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুন্দুপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী চৌধুরী বলেন, এনতাজুল হক পেশায় অটোরিক্সা চালক এবং তার স্ত্রী মমেনা খাতুন গৃহীনি ছিলেন। ওই দম্পতির দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

শুক্রবার সকালে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের পরিবারকে সরকারি সহযোগিতার আশ্বাস দেন। বাদ জুম্মা  যানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে স্বামী-স্ত্রীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ বলেন, ‘স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু ঘটনাটি মর্মান্তি। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে নিহত দম্পতির পরিবারকে সরকারি সহায়তা প্রদান করা হবে।’ 

পিডিএসও/এসএম শামীম

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
নীলফামারী,স্বামী-স্ত্রী,মৃত্যু
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close