আব্দুস শুকুর, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার)

  ২৬ জানুয়ারি, ২০২১

শীতে বিপর্যস্ত শ্রীমঙ্গল

শ্রীমঙ্গলে সপ্তাহ জুড়ে ঘন কুয়াশা আর হাঁড় কাঁপানো ঠান্ডায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। দিনের শেষ দিকে সূর্যেও দেখা মিললেও উত্তাপ না থাকায় দিনের বেলাতেও গরম কাপড় পরে চলাচল করতে দেখা গেছে মানুষদের।

সন্ধ্যা নামার পর থেকে ঘন কুয়াশার কারণে ঝুঁকি নিয়েই যানবাহন চালাচ্ছে চালকেরা। এই কনকনে শীতে চরম দুর্ভোগে সময় পার করছে ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া মানুষজন।

শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সহকারী পর্যবেক্ষক মো. জাহেদুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার শ্রীমঙ্গলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। চলতি মাসে বেশ কয়েকবার শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

সোমবার রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা যায় সন্ধ্যার পর থেকেই হাড় কাঁপানো শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে অল্প আয়ের সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে চা-বাগানগুলোতে শীতের তীব্রতা খুব বেশিই। তাই নিম্ন আয়ের মানুষদের গরম কাপড়ের অভাবে আগুন জ্বালিয়ে তাপ নিতে দেখা।

জেরিন চা-বাগানের শ্রমিক আপন মুন্ডা বলেন, ৮-১০ দিন থেকে হঠাৎ প্রচণ্ড ঠান্ডা পড়েছে। আমাদের মতো গরিব চা-শ্রমিকেরা অনেক কষ্টে দিন পার করছে। পর্যাপ্ত গরম কাপড় না থাকায় চা-শ্রমিকেরা রয়েছে সবচেয়ে কষ্টে। এমন অবস্থায় সরকারি ও বেসরকারিভাবে চা-বাগানে শীতবস্ত্র বিতরণ করা খুব জরুরি।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে উপজেলার ৫ হাজার ৬শ’ গরীব অসহায় মানুষদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ৪১শ' এবং উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ তহবিল থেকে পাওয়া ১৫শ' কম্বল বিতরণের অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়া ৩শ' মুক্তিযোদ্ধাসহ দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে এসব কম্বল বিতরণ করা হবে।

পিডিএসও/এসএম শামীম

 

শীত,বিপর্যস্ত,শ্রীমঙ্গল
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close