নোয়াখালীতে অসহায় মেয়ের বিয়ে দিলেন পুলিশ সুপার

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০২০, ১১:১৮ | আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২০, ১২:১১

জুয়েল রানা লিটন, নোয়াখালী

নোয়াখালীতে মৃত পিতার অবর্তমানে অভিভাবকের দায়িত্ব নিয়ে বিয়ের সকল খরচ বহন করে এক অসহায় মেয়েকে বিয়ে দিলেন নোয়াখালী জেলা পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন।

নোয়াখালী সদর উপজেলার এওজ বালিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা পুলিশ কনস্টেবল আনোয়ার উল্লাহ ২০০৯ সালে কক্সবাজারে কর্তব্যরত অবস্থায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। মৃত্যুকালে তিন মেয়ে এক ছেলে রেখে যান। ছোট থাকায় পরিবারের হাল ধরার কেউ ছিল না। ফলে চরম অন্ধকার নেমে আসে পরিবারটিতে।

মৃত পুলিশ কনেস্টবলের স্ত্রী সাহেদা আক্তার জানান, মেয়ে আসমাউল হোসনা মুক্তার বিয়ের কথা পাকাপাকি হওয়ার পরই জেলা পুলিশ সুপারের সহযোগিতা চাওয়া হয়। ঠিক সেই সময় পাশে এসে সকল খরচ বহন করে বিয়ের কার্য সম্পন্ন করেন।


আরও পড়ুন : দেহ ব্যবসায় জড়িতদের গুলি করে হত্যার নির্দেশ কিমের


এই বিয়ের আয়োজনে বর-কনে দুজনই বেশ উৎফুল্ল। পিতার অবর্তমানে অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করায় পুলিশ সুপারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান এলাকাবাসী।

পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন জানান, অসহায় পরিবারের পাশে থেকে বিয়ে দিয়েছি, তারা একা নয়, আমরা সবাই তাদের পাশে আছি। পুলিশ প্রশাসন এ ধরনের সহযোগিতা সব সময় অব্যাহত রাখবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন—অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি থীসা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ইন সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টার) সাজ্জাত হোসেন, সুধারাম থানার অফিসার ইনচার্জ নবীন হোসেন, এওজ বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু জাহেরসহ সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তি।

পিডিএসও/হেলাল