শ্রীনগরে অর্থ সংকটে মৃৎশিল্পীরা

প্রকাশ | ১৯ এপ্রিল ২০২০, ১৬:১৫

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে অর্থ সংকটে কাটছে মৃৎশিল্পীদের দিনকাল। উপজেলার হাঁসাড়া কুমার বাড়ির প্রায় ২০-২৫টি পরিবার এখন অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছেন।

করোনার প্রভাবে তাদের আয়ের উৎস বন্ধ হয়ে গেছে। মাটির তৈরি সামগ্রী বিক্রি করতে না পেরে হতাশায় আছেন তারা। ৪২৭ বছরের ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্পীরা এখন চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। 

করোনার কারণে চলছে সাধারণ ছুটি। জনসমাগম এড়াতে বৈশাখীর সমস্ত উৎসব বন্ধ। কোথায়ও বৈশাখী মেলা বসেনি। তাই মৃৎশিল্পীরা করোনার কারণে তাদের তৈরি সামগ্রী নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। বৈশাখকে ঘিরে তাদের যত স্বপ্ন ছিল তা ফিকে হয়ে গেছে। মাটির তৈরি এতসব সামগ্রীও নষ্ট হওয়ার পথে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এরমধ্যে কয়েকটি পরিবার তাদের তৈরিকাজ বন্ধ রেখেছেন। এ সময় অরুন পাল, মদন পাল, বিনয় পাল, লক্ষণ পাল, সুরন্ড পাল তারা বলেন, করোনার প্রভাবে তাদের সমস্ত তৈরি মালামাল আটকা পড়েছে। এসব সামগ্রী তারা কোথাও বিক্রি করতে পারছেন না। এছাড়াও চলতি বৈশাখী মেলার জন্য মাটির হরেক রকমের তৈরি অতিরিক্ত সামগ্রী আটকা পড়েছে। কোথাও মেলা উৎসব না থাকায় কিছুই করতে পারছেন না তারা। এখন দুশ্চিন্তা ও হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন। 

এছাড়া অনেকেই কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। তারা বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে এখানে মাত্র ৩-৪টি পরিবারে খাদ্য সহায়তা করা হয়েছে। ব্যক্তি উদ্যোগেও হয়তো ২-১ জন পেয়েছেন। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে তারা হতাশার কথাই জানিয়েছেন। 

এছাড়াও উপজেলার ষোলঘর পালবাড়ি, তন্তর কুমার পাড়া ও বাঘড়ায় কুমার বাড়ি নামে বেশ কিছু মৃৎশিল্পী আছেন। তারা স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। 

পিডিএসও/হেলাল