মাদারীপুর লকডাউন

প্রকাশ | ১৬ এপ্রিল ২০২০, ১৯:৩৪ | আপডেট: ১৬ এপ্রিল ২০২০, ১৯:৪০

মাদারীপুর প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগের রোগী শনাক্ত হওয়ার পর পরিস্থিতি মোকাবিলায় মাদারীপুর জেলাকে আনুষ্ঠানিকভাবে লকডাউন ঘোষণা করেছে প্রশাসন। জেলা ম্যাজিষ্টেট ও জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম।বৃহস্পতিবার দুপর ১টা ৩০ মিনিটের সময়  এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেন। বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকেই মাদারীপুর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত লকডাউন বলবৎ থাকবে। 

লকডাউন চলাকালে মাদারীপুর জেলার সঙ্গে অন্য কোনও জেলার প্রবেশ ও বের হওয়ার সকল প্রকার রাস্তাঘাট বা অন্য কোনো পথে কেউ বের হতে পারবেন না। একইভাবে জেলার বাইরে থেকেও কেউ মাদারীপুর জেলায় প্রবেশ করতে পারবেন না। সকল ধরণের গণপরিবহন ও জনসমাগম বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি পরিসেবা, চিকিৎসা সেবা, কৃষিপণ্য-খাদ্যদ্রব্য সরবরাহ ও সংগ্রহ, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, টেলিফোন, ইন্টারনেট, ব্যাংকিং সেবা, মোবাইল ব্যাংকিং, ওষুধ শিল্প সংশ্লিষ্ট যানবাহন ও কর্মী লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে। এমনকি আন্তঃ উপজেলা যাতায়াত ও এসময় সম্পূর্ন বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। এই আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশে সর্বপ্রথমে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলাকে অঘোষিত লকডাউন ঘোষণা করা হয়। পর্যায়ক্রমে রাজৈর ও কালকিনি উপজেলা লকডাউন করা হয়। জেলায় এই পর্যন্ত ২৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে শিবচরে ১৫ জন, মাদারীপুর সদরে ৫ জন, কালকিনি উপজেলায় ১ ও রাজৈর উপজেলায় ২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত লকডাউন বলবৎ থাকবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন মাদারীপুর জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ শফিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান, মাদারীপুর জেলায় কর্মরত সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ এনাম,মাদারীপুর পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ এবং মাদারীপুর জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ ।