চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

প্রকাশ | ২২ মার্চ ২০২০, ১৭:৩৩ | আপডেট: ২২ মার্চ ২০২০, ১৭:৪৯

কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি:

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ভারতে সরকারিভাবে রোববার সারা দেশে ভোর থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত জনতার কারফিউ ঘোষণা করা হয়। ফলে রোববার সারা ভারত অবরুদ্ধ থাকায় অন্যান্য স্থল শুল্ক স্টেশন ও স্থল বন্দরের মত মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকে। আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকায় রোববার সকাল থেকে চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশন এলাকায় ভারতে রপ্তানিযোগ্য বাংলাদেশি অনেক ট্রাক ও কার্গো আটকা পড়েছে।

রোববার দুপুরে সরেজমিন চাতলাপুর স্থল শুল্ক ও অভিবাসন কেন্দ্র এলাকা ঘুরে দেখা যায়, শনিবার বিকেল পর্যন্ত যেখানে আমদানি ও রপ্তানি পণ্য খালাসে কর্ম চাঞ্চল্য ছিল চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশন এলাকা, সেখানে রোববার নেই কোনও মানুষজন ও পন্যবাহী যানবাহন।  চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনের ফটকের সামনে বাংলাদেশ থেকে ভারতে রপ্তানিযোগ্য বাংলাদেশি সিমেন্টসহ বিভিন্ন পণ্য সামগ্রীবাহী অনেকগুলো ট্রাক ও কার্গো আটকা পড়ে থাকতে দেখা যায়। একই চিত্র দেখা গেছে চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনের ওপারে ভারতের ত্রিপুরার মনু স্থল শুল্ক স্টেশন এলাকায়। চাতলাপুর অভিবাসন কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজ দায়িত্ব পালন করতে ও সীমান্ত নিরাপত্তায় বিজিবি সদস্যদের দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। 

চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনের ব্যবসায়ী সোহেল চৌধুরী বলেন, ইতোমধ্যেই চাতলাপুর অভিবাসন কেন্দ্র দিয়ে ভারতে যাতায়াত বন্ধ হয়ে গেছে।  চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশন দিয়ে ভারত থেকে প্রচুর পরিমাণে কমলা, আংগুর ও আনারসহ ভারতীয় ফল বাংলাদেশে আসছে। তবে ভারতে জনতার কারফিউর কারণে আজ বন্ধ থাকার পর সোমবার থেকে আবারও ভারতীয় ফল এ পথে বাংলাদেশে আসবে। 

চাতলাপুর অভিবাসন কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক জামাল হোসেন বলেন, গত এক সপ্তাহ ধরে এ পথে ভারতে যাত্রী যাতায়ত বন্ধ রয়েছে। আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এ পথে যাত্রী যাতায়াত বন্ধ থাকছে। তবে আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম চলছিল। শুধুমাত্র রোববার আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত ভিসাধারী ভারতীয় যাত্রীরা সিলেটের শেওলা ও ভারতের সুতাকান্দি অভিবাসন কেন্দ্র দিয়ে এবং বাংলাদেশের আখাউড়া ও ভারতের আগরতলা অভিবাসন কেন্দ্র দিয়ে ভারত যেতে পারবেন।