বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি

  ২৪ জুন, ২০২৪

পঞ্চগড়ে জমি দখল ও হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় অন্যায়ভাবে জমি দখল, মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে এবং ভূমিদস্যু তোয়ায়েল আহম্মেদ এবং এ থানার ওসি মোজাম্মেল হকের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগীরা। উপজেলার ময়দানদিঘী বাজারে ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয়দের ব্যানারে পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়কের একপাশে দাঁড়িয়ে ঘণ্টাব্যাপী এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য আনসারুল ইসলাম, পারুল বেগম, শাপলা আক্তার, আর্ণিকা বেগম, শাহজাহান আলী প্রমুখ বক্তব্য দেন।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, বোদা উপজেলার ময়দানদিঘী ইউনিয়নের জমকুড়াপাড়া এলাকার আনসারুল ইসলাম ও তার পরিবার দীর্ঘ ৭৫ বছর ধরে ক্রয়সূত্রে ২৪ বিঘা জমির মালিকানা লাভ করেন। তবে ওই জমি গত কয়েক বছর আগে স্থানীয় আনিসুরসহ তার পরিবারের সদস্যরা জমি গাজীপুর জেলার তোফায়েল আহম্মেদ নামে এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেন। পরে এ নিয়ে আদালতে মামলা গড়ায়।

সম্প্রতি সেই জমি দখলে নিতে বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাম্মেল হকের উপস্থিতিতে কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে জমি দখলে নেন ভূমিদস্যু তোফায়েল। তবে রাতের আঁধারে কে বা কারা জমিতে দেওয়া বেড়া ক্ষতিগ্রস্ত করেছে, তার দায় চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে ভুক্তভোগী পরিবারের ওপর। পরে এ নিয়ে তোফায়েল বোদা থানায় সীমানা বেড়া ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মামলার আসামি ধরতে রাতে ভুক্তভোগীদের হয়রানি করছে। অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, হয়রানি বন্ধসহ ভূমিদস্যু তোফায়েল ও বোদা থানার ওসি মোজাম্মেল হকের বিচার দাবি করেন বক্তারা।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য আনসারুল ইসলাম বলেন, আমাদের জমি অন্যায়ভাবে দখলে নিয়ে আমাদের ওপরই মালামাল চুরির একটি মিথ্যা মামলা বোদা থানায় দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ রাতে আমাদের ধাওয়া করছে। আমাদের পরিবারের কয়েকজন ছাত্রছাত্রীকেও আসামি করা হয়েছে, তাদের কারো এইচএসসি কারো অনার্স পরীক্ষা চলছে। তারাও বাসায় থাকতে পারছে না। আমরা আমাদের জমি ফেরত চাই। সেই সঙ্গে অবৈধ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, ভূমিদস্যু তোফায়েল ও বোদা থানার ওসি মোজাম্মেল হকের বিচার চাই। মানববন্ধন শেষে একই দাবিতে ময়দানদিঘী বাজারে ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয়রা পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়ক ঘণ্টাব্যাপী অবরোধ করেন। এ সময় মহাসড়কের দুই পাশে অর্ধশতাধিক যানবাহন আটকে পড়ে। পরে বোদা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এস এম ফুয়াদ ও বোদা হাইওয়ে থানার ওসি শরিফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে পৌঁছে ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে মামলার বিষয়ে তদন্ত ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দিলে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা।

এদিকে সব অভিযোগ অস্বীকার করে তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, আমার কাছে কোর্টের আদেশ আছে। আমি সেই আদেশের বলে জমিতে গেছি। কোর্ট আমাকে জমি দখল করে দিয়েছে। আপনারা চাইলে সব কাগজপত্র দেখতে পারেন। আর আমি কোনো মিথ্যা মামলা করিনি। কাউকে হয়রানিও করা হচ্ছে না। আমার মালামাল চুরি হয়েছে, এজন্য মামলা করেছি।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক বলেন, সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ওই ঘটনায় সব কর্মকাণ্ড আইন অনুযায়ী করা হয়েছে। বোদা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এস এম ফুয়াদ বলেন, আমি ভুক্তভোগী পরিবারের ন্যায় বিচারে আশ্বস্ত করেছি। কাউকে যেন হয়রানি না করা হয়, সেটি আমরা লক্ষ্য রাখছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে তারা সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close