শরীয়তপুর প্রতিনিধি

  ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১

শিমুলিয়া-মাঝিরঘাটে নাব্যতা সংকট

পরীক্ষামূলক ফেরি আটকে গেল চার স্থানে

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ও শরীয়তপুরের মঙ্গল মাঝিরঘাটে পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। তবে পরীক্ষামূলক চলাচলের সময়ও অন্তত চারটি জায়গায় ফেরি আটকে যায়। ফলে নাব্য সংকটে নিয়মিত ফেরি পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি)। গতকাল শনিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে ফেরি কুঞ্জলতা শিমুলিয়া থেকে ছেড়ে যায়। এটি দুপুর ২টার দিকে মঙ্গল মাঝিরঘাটে গিয়ে পৌঁছায়। পরে ফেরিটি বিকাল ৩টার দিকে মঙ্গল মাঝিরঘাট থেকে শিমুলিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (বাণিজ্য) এস এম আশিকুজ্জামান জানান, পরীক্ষামূলক চলাচলের সময় ফেরিতে বিআইডব্লিউটিসি, বিআইডব্লিউটিএ, ড্রেজিং বিভাগ, বাংলাদেশ পুলিশ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা অবস্থান করেন।

শিমুলিয়া থেকে ছাড়ার সময় ৪৫টি যানবাহন ধারণক্ষমতার ফেরিটি ২১টি হালকা গাড়ি বহন করে। এর মধ্যে ছিল একটি লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স, একটি গরুবাহী ছোট পিকআপ ভ্যান, ব্যক্তিগত প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস এবং ২৪টি মোটরসাইকেল। বিআইডব্লিউটিসি পরিচালক আশিকুজ্জামান জানান, শিমুলিয়া থেকে মঙ্গল মাঝিরঘাট যাওয়ার সময় ফেরি পদ্মাসেতুর পূর্ব পাশে ৫০০ মিটার ভাটি দিয়ে চলবে। পরীক্ষামূলক চলাচলের সময় অন্তত চার জায়গায় ফেরি আটকে যায়। এ চার জায়গায় নাব্য সংকট পাওয়ায় নিয়মিত ফেরি পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে না। এসব জায়গায় ড্রেজিং করতে কমপক্ষে ১ সপ্তাহ সময় লাগবে। আশা করি সবকিছু ঠিক থাকলে ১ সপ্তাহ পর বাণিজ্যিকভাবে এই নৌপথে ফেরি চলাচল শুরু করা সম্ভব হবে।চলতি বছর বর্ষা মৌসুমে পদ্মায় পানি ও স্রোত বেড়ে গেলে বাংলাবাজার ঘাট থেকে শিমুলিয়া ঘাটে ফেরি চলাচলের সময় জুলাই-আগস্ট মাসে সেতুর পিলারে কয়েক দফা ধাক্কা লাগে। এতে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ১৮ আগস্ট থেকে ফেরি বন্ধ রাখা হয়।

জরুরি সেবার জন্য অ্যাম্বুলেন্স, ছোট গাড়ি, সরকারি দপ্তরের জরুরি গাড়ি পারাপারে শরীয়তপুরের জাজিরার মঙ্গলমাঝির ঘাটে ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে নতুন ফেরিঘাট স্থাপন করা হয় এবং নারায়ণগঞ্জ থেকে একটি পন্টুন আনা হয়।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close