মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

  ১০ অক্টোবর, ২০২১

পশুর নদে ফের জাহাজডুবি

একদিনের ব্যবধানে মোংলায় পশুর নদীতে আরেকটি লাইটার জাহাজডুবির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শনিবার ভোরে মোংলা বন্দরের দুবলার চর এলাকায় পাথরবোঝাই ‘এমভি বিউটি লোহাগড়া-২’ নামে একটি লাইটার জাহাজ ডুবে যায়। জাহাজটিতে থাকা ১০ নাবিককে জীবিত উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। 

এর আগে গত শুক্রবার দুপুরে পশুর নদীতে সার নিয়ে ‘এমভি দেশবন্ধু’ নামে একটি লাইটার জাহাজ ডুবে যায়। সেটি এখনও উদ্ধারের তৎপরতা শুরু করতে পারেনি মালিকপক্ষ।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন ও কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের (মোংলা সদর দপ্তর) গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মো. হাসানুজ্জামান জানান, মোংলা বন্দরের বাইরে ফেয়ারওয়ে এলাকায় অবস্থান করা সিঙ্গাপুর পতাকাবাহী ‘এমভি সাগর রতন’ থেকে ১ হাজার ২০০ মেট্রিক টন পাথর নিয়ে খুলনার উদ্দেশে যাচ্ছিল ‘এমভি বিউটি লোহাগড়া-২’ লাইটার জাহাজ। পথে ভোররাতে দুবলারচর এলাকায় তলা ফেটে ডুবতে থাকে জাহাজটি। খবর পেয়ে কোস্টগার্ড দুবলা ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই জাহাজে থাকা ১০ নাবিককে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত নাবিকদের বাড়ি দেশের বিভিন্ন জেলায়।

এদিকে, সার নিয়ে ডুবে যাওয়া লাইটার জাহাজ ‘এমভি দেশবন্ধু’কে জরুরি ভিত্তিতে উত্তোলনের নির্দেশ দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে ডুবে যাওয়া জাহাজ থেকে দ্রুত সার অপসারণেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার ও সচিব (ভারপ্রাপ্ত) কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন।

তিনি বলেন, আজই এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে দেশবন্ধু লাইটার জাহাজের মালিক কাজী নজরুল ইসলামকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বন্দরের নৌ চ্যানেল থেকে জরুরি ভিত্তিতে ১৫ দিনের মধ্যে জাহাজটিকে উদ্ধার করতে হবে। উদ্ধারে ব্যর্থ হলে বন্দরের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় জাহাজটি উদ্ধার করা হবে। এজন্য মালিকপক্ষকে সম্পূর্ণ আর্থিক খরচ দিতে হবে। না দিলে জাহাজটি নিলামে তুলবে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ ও বিজ্ঞান বিভাগের ডিসিপ্লিন অধ্যাপক আবদুল্লাহ হারুন চৌধুরী বলেন, পশুর নদীতে ডুবে যাওয়া জাহাজ থেকে ডেপ সার এরই মধ্যে পানিতে ছড়িয়ে পড়েছে। ইউরিয়া ও টিএসপি মিশ্রণে তৈরি হয় ডেপ সার, ফলে এই সার অতিমাত্রায় দূষণ তৈরি করে। তাতে ব্যাকটেরিয়া ও অণুবিক্ষণিক জীবাণু বেড়ে জলজ প্রাণীর রোগ তৈরি হবে।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close