সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ১১ জুলাই, ২০২৪

সোনারগাঁ

অবহেলায় পরিত্যক্ত ডিসি গার্ডেন রেস্ট হাউস

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা প্রশাসনের নজরদারীর অভাবে গঙ্গানগর নয়াচর এলাকায় পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে সরকারি ডিসি গার্ডেন রেস্ট হাউসটি। সরেজমিনে এমনই দৃশ্য দেখা গেছে। তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু নাসের ভূঁইয়া রেস্ট হাউসটির নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করেছিলেন।

উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন বেদখলে থাকা চররমজান সোনাউল্লাহ মৌজায় সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত ১ একর ৭৭ শতাংশ জমি প্রথমে উদ্ধার করেন সোনারগাঁ উপজেলা প্রশাসন। পরে ২০১৬ সালে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের সমন্বয়ে ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ডিসি গার্ডেন রেস্ট হাউস নির্মাণ করা হয়। তৎকালীন জেলা প্রশাসক মো. আনিছুর রহমান মিয়া ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর ডিসি গার্ডেন রেস্ট হাউসটি উদ্বোধন করেন। এটি উদ্বোধনের পর উপজেলা প্রশাসনের সঠিক নজরদারি, নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগ ও রক্ষানাবেক্ষনের অভাবে একটি পরিত্যক্ত ভবনে পরিনত হয়েছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, ডিসি গার্ডেন রেস্ট হাউসটির দরজা, জানালা, গ্রীল, টেবিল, চেয়ার বিভিন্ন আসবাবপত্র, পানির ট্যাঙ্কি, পানির মোটর পাম্প, বাতিসহ বৈদ্যুতিক মালামাল ও মূল্যবান অনেক জিনিসপত্র চুরি হয়ে গেছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ওই রেস্ট হাউসটি নির্মাণের পর থেকেই এখানে সরকারি কোনো কর্মকর্তা কর্মচারীকে আসতে দেখা যায়নি। একেবারেই নির্জন এলাকায় একটি রেস্ট হাউস কী কারণে নির্মাণ করা হল তাও জানা নেই কারো। এটি আসলে সরকারি টাকার অপচয়। একটি সরকারি ভবনের রক্ষাবেক্ষনে কোন দারোয়ান অথবা নৈশ প্রহরী নেই। সেই জন্য ভবনটির সব মালামাল চুরি হয়ে গেছে। ভবনটি এভাবে পড়ে থাকলে মাদক সেবীদের আড্ডায় পরিনত হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, ওই রেস্ট হাউজের ভেতর ও বাহিরের অধিকাংশ জিনিসপত্র চুরি হয়ে গেছে। এর নিরাপত্তার দায়িত্বে কে ছিলেন এবং মালামাল চুরির ঘটনায় কোনো আইনী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল কি না তা তদারকি করা হচ্ছে। তদারকির পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close