ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

  ২২ জুন, ২০২২

ভাঙ্গুড়ায় ঘুষ না দেওয়ায় শিক্ষককে পিটিয়ে জখম

ঘুষের টাকা না দেওয়ায় দহপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে (৫৬) পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছেন ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফজলুর রহমান। গত ১৯ জুন সকালে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়েনের দহপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে জানা গেছে, টাইম স্কেলের রেজুলেশনের জন্য দহপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষক-কর্মচারী আবেদন করেন। সেই আবেদন ফরমে প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর চাইলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জনপ্রতি ২ হাজার টাকা করে ঘুষ দাবি করেন।

গত দুই মাস আগে আবেদনগুলো প্রধান শিক্ষকের কাছে জমা দিলেও অদ্যবধি তিনি স্বাক্ষর করছেন না কেন?- এমন প্রশ্ন শিক্ষক রফিকুল ইসলাম করলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘টাকা চেয়েছিলাম কেউ দেননি, তাই স্বাক্ষর করিনি। এখন যদি ১ হাজার ৫০০ টাকা করে সবাই দেন, তাহলে স্বাক্ষর করে দেব।’ তখন শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা কোনো ঘুষ দিতে পারব না। টাইম স্কেল আমাদের অধিকার।’ তখন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক উত্তেজিত হয়ে কাঠের চেয়ার দিয়ে শিক্ষক রফিকুল ইসলামের মাথায় আঘাত করেন। পরে অন্যান্য শিক্ষক ও ছাত্ররা তাকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়মিত মাদক সেবন করেন। তিনি মাঝেমধ্যেই শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। প্রধান শিক্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা সবাই কিছু বলতে পারি না।’

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফজলুর রহমান তার বিরুদ্ধে সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘মূলত বিদ্যালয়ের কেউ আমাকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে মেনে নিতে চাচ্ছে না। তাই সবাই মিলে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। শিক্ষক রফিকুল ইসলাম প্রথমে আমাকে আঘাত করে, আমি শুধু সেটা প্রতিহত করি।’

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমি অফিসের কাজে বাইরে আছি। ফোনে বিষয়টি শুনেছি।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close