ফরিদপুর প্রতিনিধি

  ১৯ জুন, ২০২২

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে বাড়িঘর ভাঙচুর, আহত ১৫

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ সময় ২০টি বসতঘরে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার সকালে উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের সেনহাটি গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদের ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয়রা জানায়, গ্রাম্য দলাদলি ও দলীয় প্রভাব বিস্তার নিয়ে উপজেলার সেনহাটি গ্রামের কবির মল্লিক ও তাঁর প্রতিপক্ষ একই গ্রামের দোলোয়ার মেম্বারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। কবির মল্লিক জেলে থাকায় তাঁর পক্ষে নেতৃত্ব দেয় বড় ভাই মোহাম্মদ মল্লিক। এই বিরোধের জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে দেলোয়ারের সমর্থক স্থানীয় গ্রাম্য মাতুব্বর, ফাগু মাতুব্বরের বাড়িতে দল পক্ষ নিয়ে মিটিং করা হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ফাগু মাতুব্বর ও ফরিদ নামের একজনকে আটক করে। ফাগু মাতুব্বর জামিনে আসলে এলাকা উত্তেজিত হয়। সন্ধ্যায় পাশের গৌড়দিয়া বাজারে দুই পক্ষ একত্রিত হলে বাজার উত্তেজিত হয় সেখান দেলোয়ার মেম্বারের সমর্থক গোবিন্দপুর গ্রামের ওয়াজেদের ছেলে আফছারকে মারধর করে কবির মল্লিকের সমর্থক আবদুল মাতুব্বর গংরা। সারা রাত এলাকা উত্তেজিত থাকলেও পুলিশি টহলের কারণে সংঘর্ষ হয়নি। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় সালথা থানার ওসি শেখ সাদিক বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকা এখন শান্ত রয়েছে।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close