গাজীপুর প্রতিনিধি

  ২৮ নভেম্বর, ২০২১

প্রতিশোধ নিতে মা-মেয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ২

গাজীপুরে মা-মেয়ে হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ। মা ফেরদৌসী গাজীপুরের গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করতেন। ওই ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে ভাতিজি লিমাকেও চাকরির ব্যবস্থা করে দেন। চাকরি পাওয়ার পর লিমা তার স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ করেন। বিচ্ছেদে ফেরদৌসীর ইন্দন রয়েছে- এমন সন্দেহে এবং ইন্স্যুরেন্সের কিস্তির টাকার জন্য বারবার ফোন দেওয়ায় গ্রেপ্তার দুজনে ফেরদৌসীকে হত্যা করে। হত্যাকা- দেখে চিৎকার করলে তার মেয়েকেও খুন করা হয়।

শনিবার মেট্রোপলিটন পুলিশ হেডকোয়ার্টারে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে মা-মেয়ের হত্যাকান্ডের মোটিভ সম্পর্কে বলতে গিয়ে এমন তথ্য জানালেন গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (অপরাধ-উত্তর) জাকির হাসান।

গ্রেপ্তাররা হলো গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানার সালদিয়া গ্রামের ছাত্তার খানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম খান (২১) এবং একই এলাকার মনির হোসেনের ছেলে মো. মহিউদ্দিন ওরফে বাবু (৩৫)।

নিহতরা হলেন গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানার নরুন বাজার এলাকার বাসির উদ্দিন বেপারীর মেয়ে ফেরদৌসি (৩০) ও তার মেয়ে তাসমিয়া (৫)।

উপপুলিশ কমিশনার জাকির হাসান জানান, আসামি বাবুর স্ত্রী লিমাকে ওই ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কিছুদিন পর বাবু লিমার মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদ। এ বিচ্ছেদের জন্য বাবু তার ফুফু শাশুড়ি ফেরদৌসীকে সন্দেহে করে। প্রতিশোধ নিতে সে ফেরদৌসীকে হত্যার পরিকল্পনা করে। অপরদিকে ফেরদৌসীর কাছ থেকে জাহিদুল ওই কোম্পানির বিমা খুললেও কিন্তু বকেয়া ছিল। বকেয়া কিস্তির জন্য তাকে বারবার ফোন করে ফেরদৌসী। এতে জাহিদুলও ক্ষুব্ধ ছিল এবং হত্যা পরিকল্পনায় বাবুকে সঙ্গ দেয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর মেট্রো পুলিশের এডিসি রেজওয়ান আহমেদ, সদর জোনের এসি রিপন চন্দ্র সরকার, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল ইসলাম।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close