মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

  ২৮ নভেম্বর, ২০২১

মুন্সীগঞ্জে ১০ একর জমিতে আলুবীজ রোপণে বাধা

মুন্সীগঞ্জে পূর্বশত্রুতার জেরে ১০ একর জমিতে আলুবীজ রোপণ করতে পারছেন না কৃষক। প্রতিপক্ষের লোকজনকে চাঁদা না দেওয়ায় ভুক্তভোগীদের বীজ রোপণে বাধা ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মুন্সীকান্দি, বেহেরকান্দি ও মোল্লাকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে কৃষকরা সদর থানায় অভিযোগ করলেও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি পুলিশ।

কৃষকরা জানান, চলতি সপ্তাহের মধ্যে জমিতে (ফসলি খেতে) আলুবীজ রোপণ করতে না পারলে ওই জমিতে আর ফসল ফলানো যাবে না। আমাদের ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে।

জানা গেছে, মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের কৃষক আজহার দেওয়ান, হালিম বেপারি, সৈয়দ দেওয়ান, মুক্তার দেওয়ান, সাইফুল বেপারি, বাচ্চু ফকির, শহিদুল্লাহ কাজী। তারা স্থানীয় কামাল কাজী নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে ১০ একর জমি আলুচাষাবাদ করার জন্য (নাটি) বর্গা নেয়। কিন্ত কামাল কাজীর সঙ্গে স্থানীয় প্রভাবশালী বিএনপি নেতা উজির আলী সরকারের পূর্বশত্রুতা থাকায় তিনি জমিতে আলুবীজ রোপণে বাধা দিচ্ছেন।

কৃষক হালিম বেপারি বলেন, ‘দুই দিন আগে আলুবীজ নিয়ে জমিতে গিয়েছিলাম। সেই সময় উজির আলী সরকার ও তার লোকজন ভয়ভীতি দেখিয়ে জমি থেকে তাড়িয়ে দেয়। আমাদের হাত-পা ভেঙে দেবে, মেরে ফেলবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দিচ্ছে।’

এদিকে জমির মালিক কামাল কাজী বলেন, ‘মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মুন্সীকান্দি, বেহেরকান্দি ও মোল্লাকান্দি গ্রামে আমার ১০ একর জমি রয়েছে। আলু বীজ রোপণের সময় কৃষক বর্গা নিয়ে এসব জমি চাষাবাদ করেন। চলতি বছর আলুচাষের জন্য কৃষকরা জমি বর্গা নেন। কিন্তু স্থানীয় উজির আলী সরকার ও তার লোকজন আমার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দেওয়ায় তার জমিতে আলুবীজ রোপণ করতে দিচ্ছে না।’

এ ব্যাপারে বিএনপি নেতা উজির আলী বলেন, ‘কামাল কাজী আমার বিরুদ্ধে যে চাঁদাবাজি ও আলু বীজ রোপণে বাধা দেয়ার কথা বলেছে তা পুরোটা মিথ্যা ও উদ্দেশ্যমূলক। এসবের কোনোটাই আমি বা আমার লোকজন করেনি।’

ওসি আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, কৃষকদের জমিতে আলুবীজ রোপণে বাধা দেওয়া হচ্ছে এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close