বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধি

  ১৫ অক্টোবর, ২০২১

কচু চাষে সফল জিয়ারুল

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় ‘বউশা হাইব্রিড’ জাতের মুখীকচু চাষ করে সফল হয়েছেন কৃষক জিয়ারুল। ২০১০ সালে বড় ভগ্নিপতির পরামর্শে প্রথমে বাড়ির পাশে ১০ কাঠা জমিতে ‘বউশা হাইব্রিড’ জাতের মুখীকচু চাষ শুরু করেন তিনি। এরপর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তার সফলতা দেখে গ্রামের অনেকেই কচু চাষে ঝুঁকছেন।

আরো জানা যায়, কচু চাষ করে খরচের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি লাভ হওয়ায় পরের বছর আরো এক বিঘা জমিতে চাষ করেন জিয়ারুল। এরপর প্রতি বছরই বাড়তে থাকে কচু চাষের পরিধি। লাভের টাকা দিয়ে তিনি এই কয়েক বছরে চার বিঘা জমি কিনেছেন। তবে পরিশ্রম ও উৎপাদন খরচ কম হওয়ায় চলতি মৌসুমে তিনি সাড়ে তিন বিঘা জমিতে কচুর চাষ করেছেন। এ ছাড়াও তিনি কচু চাষের পাশাপাশি মৌসুমি ফল আম, লিচু, পেয়ারা ইত্যাদি ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত।

এ বিষয়ে জিয়ারুল জানান, চৈত্র ও বৈশাখ মাসে কচুর বীজ লাগান। প্রতি বিঘা জমিতে ৮০ থেকে ১০০ কেজি বীজ লাগাতে হয়। এতে বিঘায় ৯৫ থেকে ১১০ মণ কচু পাওয়া যায়। কচুতে রোগ ও পোকার আক্রমণ তুলনামূলক কম হওয়ায় লাভ বেশি হয়। সাড়ে তিন বিঘা জমিতে তার খরচ হয়েছে ৮০ হাজার টাকা। এখন পর্যন্ত বিক্রি করেছেন প্রায় ১ লাখ ৪৫ হাজার টাকা। তিনি আশা করেন জমিতে যে পরিমাণ কচু আছে, তা দিয়ে আরো প্রায় দেড় লাখ টাকার কচু বিক্রি করা যাবে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোমরেজ আলী বলেন, ‘বাগাতিপাড়ায় চলতি বছর প্রায় ১২০ বিঘা জমিতে মুখীকচুর চাষ হয়েছে। এ জাতের কচুর পাশাপাশি ওলকচু, মানকচুও সম্ভাবনাময় ফসল হিসেবে দেখা দিয়েছে। তাই কচুর আবাদ বৃদ্ধিতে কৃষি দপ্তর থেকে কৃষকদের নিয়মিত পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close