চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

  ১৪ অক্টোবর, ২০২১

এবারও স্বস্তিতে নেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় বইছে ভোটের হাওয়া। স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম রাজনীতি। চলছে নির্বাচনী প্রচারণা। মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা। সামাজিক ও রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া ও সৌজন্য সাক্ষাতের পাশাপাশি জনসংযোগও করছেন তারা।

কেন্দ্রীয় নির্দেশ উপক্ষো করে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে চার বিএনপি নেতা মনোয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন বিএনপি নেতা মো. নজরুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ময়েজ উদ্দিন, বিএনপি নেতা ও সাবেক কাউন্সিলর মো. শাহনেওয়াজ খান সিনা, বিএনপি সমর্থিত সাবেক মেয়র মাওলানা আব্দুল মতিন। এছাড়াও জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল ও জাসদের মনিরুজ্জামান প্রার্থী হয়েছেন।

সংশ্লিষ্টদের মতে, নির্বাচন নিয়ে তৃণমূলে সবসময় প্রবল আগ্রহ থাকে। প্রার্থীরা জনগণের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি সম্পৃক্ত থাকার কারণে এই নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবের আমেজ সবসময়ই লক্ষণীয়। নির্বাচন ঘিরে শুরু হয়েছে নানা অস্থিরতা। আওয়ামী লীগের মনোনয়নবঞ্চিত জেলা যুবলীগের সভাপতি সামিউল হক লিটন স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় এ নির্বাচনে উৎসবের আমেজে ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল হক লিটনের পক্ষে সব ওয়ার্ড ও ইউনিটে পরিকল্পিত ও সুশৃঙ্খলভাবে প্রচার চালাচ্ছেন তার সমর্থকরা। জয়ের ব্যপারে আশাবাদি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের সমর্থকরাও চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা।

আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীরা বলছেন, আগের ভুলগুলো শুধরিয়ে এবারের নির্বাচনে তারা কাজ করছেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই আগামী দিনের জন্য নিজেদের সুসংগঠিত করছেন তারা। আর এই সক্রিয়তা কাজে লাগবে ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পৌর নির্বাচনে। মঙ্গলবার শহরের বটতলাহাটে জোসনারা পার্কে অনুষ্ঠিত পৌর আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলনেও কর্মীদের সুসংগঠিত হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন নেতারা।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, তাদের প্রার্থী মো. মোখলেসুর রহমান অনেক আগ থেকেই মাঠে রয়েছেন। এছাড়াও মানুষ আর ভুল করবে না উন্নয়নের স্বার্থে নৌকায় ভোট দেবেন পৌরবাসি।

মঙ্গলবার পৌর আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়া জেলা যুবলীগ সভাপতি সামিউল হক লিটনকে উদ্দেশ্য করে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ বলেছেন, মনোনয়ন না পাওয়ায় তার কষ্ট হওয়াটা স্বাভাবিক। তার কষ্ট লাঘবের দায়িত্ব আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের। মোখলেসুর রহমানকে সামিউল হক লিটনের সঙ্গে যোগাযোগ করে সমঝোতার নির্দেশও দিয়েছেন আব্দুল ওদুদ।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close