কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

  ৩১ জুলাই, ২০২১

অভয়াশ্রম থেকে ৩০ লাখ টাকার মাছ লুট

কুষ্টিয়া কুমারখালীতে ইফাদ প্রকল্পের আওতায় কালীগঙ্গা-বাদলবাসা বাঁওড়ের মৎস্য অভয়াশ্রমের প্রায় ৩০ লাখ টাকার মাছ লুট হয়েছে। পানিতে অক্সিজেন সংকটের কারণে এসব মাছ ভেসে উঠে। উপজেলার মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের অবহেলায় এমনটা হয়েছে বলে দাবি প্রান্তিক জেলেদের।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও অবহেলার অভিযোগ নাকচ করে বলেন, প্রশাসনিক ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষমতা মৎস্য বিভাগের নেই। তা ছাড়া বিষয়টি জেলা মৎস্য কর্মকর্তাও অবগত আছেন বলে দাবি করেন তিনি। তবে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা কিছুই জানেন না বলে জানান।

লাহিনী গ্রামের প্রত্যক্ষদর্শী আবদুল গফুর বলেন, গত তিন দিন ধরে বাওড়ে সব মাছ পানির ওপরে ভাসতে দেখে দুই ধারের বাসিন্দারা সবাই যে যেমন পেরেছে জাল বর্ষাসহ নানা ধরনের সরঞ্জাম নিয়ে পানিতে নেমে বিশেষ করে রুই, কাতলা, সিলভার কাপ, গ্রাসকার্প, মিনারকার্পসহ নানা জাতের মাছ ধরেছে। যেসব জেলেরা পাহাড়া দেয় তাদের কি ক্ষমতা আছে এসব ঠেকানো?

স্থানীয় বাসিন্দা রবিউল ইসলাম বর্ষা দিয়ে মাছ ধরছিলেন, জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, প্রতি বছরই বাওড়ের পানিতে (কুষ্টা) পাট পচানোর ফলে পানিতে বিষক্রিয়া সৃষ্টি হয়। এতে পানির সব মাছ ভেসে উঠে। তখন আশপাশের লোকজন এসব ভেসে উঠা মাছ বিভিন্নভাবে ধরে নিয়ে যায়। এত মানুষকে তো ঠেকাতে পারবেন না।

কালীগঙ্গা-বাদলবাসা বাওড় মৎস্যজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আকমল হোসেনের অভিযোগ, বাওড়টি সরাসরি মৎস্য বিভাগের তত্ত্বাবধায়নে এখানকার প্রান্তিক জেলেরা মাছ চাষ করলেও সঠিক সময়ে কর্মকর্তাদের দায়িত্ব পালন না করা এবং অবহেলার কারণেই গত তিন দিন ধরে অবাধে শত শত লোক পানিতে নেমে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মাছ লুট করে নিয়ে গেছে।

কুমারখালী উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান জানান, পানিতে পাট পচানোর কারণে মাত্রাতিরিক্ত অ্যামোনিয়া বেড়ে যাওয়ায় বিষক্রিয়া সৃষ্টি হয়। এ সময় মাছের জীবন ধারণে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সংকট দেখা দেয়। এতে মাছ পানির উপর ভেসে উঠে। সময়মতো এর চিকিৎসা দিতে না পারলে পানির সব মাছই মরে যেতে পারে। বিষয়টি ইউএনও এবং ডিএফওকে জানানো হয়েছে। তবে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ডিএফও) সাজেদুর রহমান মাছ লুটের ঘটনা কিছুই জানেন না বলে এ প্রতিনিধিকে জানান।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close