নিজস্ব প্রতিবেদক

  ২২ ঘণ্টা আগে

উত্তরায় মদের আড্ডার ভিডিও ভাইরাল

বিক্ষুব্ধ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা

রাজধানী উত্তরার ৬নং সেক্টর বিডিআর কাঁচাবাজারের একটি অফিসে বসে সাবেক যুবদল নেতা এবং বর্তমানে নামধারী যুবলীগ নেতা কসাই রাজনসহ কয়েকজনের মদ পান করার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যে চেয়ারে বসে রাজনসহ অন্যরা মদ পান করছিলেন তার ঠিক দুই ফুট ওপরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় এমপি হাবিব হাসানের ছবি থাকা নিয়ে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বেশ বিক্ষুব্ধ। জাতীয় নেতাদের ছবির নিচে বসে এ রকম অনৈতিক কর্মকাণ্ড কিছুতেই মানতে পারছেন না স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। অনেকে বলছেন, এটা স্পষ্টভাবে জাতীয় নেতাদের ছবি অবমাননার শামিল। ভিডিওটি দ্রুতই ভাইরাল হয়ে যায়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভিডিওতে মদ পান করা ব্যক্তিটি কসাই রাজন। তার পাশে টুপি পরিহিত অন্য লোকটিও বাজারের মাংস বিক্রেতা। তাদের এ ঘটনায় বিডিআর বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ীরাও ক্ষুব্ধ। তারা জানান, কসাই রাজন, খোকন ও রূপগঞ্জের কায়েত পাড়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি নয়নসহ কয়েকজন প্রতিদিনই বাজারে মদের আড্ডা বসান। দিনে তারা মাংস বিক্রেতা হলেও তাদের নেতৃত্বে চলে মাদক ব্যবসাও। জানা যায়, তাদের এ কাজে শেল্টার দিচ্ছেন উত্তরা ১নং ওয়ার্ড পশ্চিম যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক স্বপন তালুকদার। এর আগে স্বপন তালুকদার কিছুদিন আগে উত্তরায় একটি ফ্ল্যাট দখল করতে গেলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। সেই সময় তাকে চেক জালিয়াতির মামলায় আটক করা হয়। এ মামলায় তিনি চার মাস জেল খাটেন। কসাই রাজন, খোকনকে সঙ্গে নিয়ে স্বপন তালুকদার প্রতিদিনই বাজারে মহড়া দেন।

জানা যায়, রাজন, খোকন ও নয়ন যুবদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। নয়ন বর্তমানে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতির দায়িত্বে। রাত হলেই তিনি বাজারে আসেন মাদকের চালান নিয়ে। কসাই রাজন একই ইউনিয়ন যুবদলের সহসভাপতির পদে। কিন্তু গত কয়েক বছরে তিনি কৃষক লীগে নাম লেখান, আর চলাফেরা করেন স্বপন তালুকদারসহ স্থানীয় যুবলীগের একটি অংশের সঙ্গে। কসাই খোকন স্থানীয় বিএনপির প্রভাবশালী এক নেতার বাসায় কাজ করতেন, তিনি উত্তরা পূর্ব থানা যুবদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। কসাই রাজনের সঙ্গে রূপগঞ্জের আরেক অস্ত্র ব্যবসায়ী ইজাজুল ওরফে এসপি মিয়মিত বাজারে আনাগোনা করেন এবং মাদক ব্যবসায়ও জড়িত। তাকে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ অস্ত্রসহ আটক করে। তার বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা আছে।তিনি কসাই রাজনের সালা ও স্থানীয় বিএনপির রাজনীতির জড়িত।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close