ক্রীড়া ডেস্ক

  ২৩ জুন, ২০২৪

ইংল্যান্ড-যুক্তরাষ্ট্র

সেমির আশায় মরিয়া ইংলিশরা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখার লক্ষ্যে আজ রবিবার সুপার এইট পর্বে গ্রুপ-২-এ নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্র। ব্রিসটাউনে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি। প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড-যুক্তরাষ্ট্র।

সুপার এইটে এখন পর্যন্ত ২টি করে ম্যাচ খেলেছে ইংল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্যে এক ম্যাচ জিতেছে ইংলিশরা। অন্যদিকে দুই ম্যাচের দুটিতেই পরাজিত হওয়ায় টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। ইংল্যান্ডের কাছে শেষ ম্যাচে হেরে গেলে আনুষ্ঠানিকভাবে সুপার এইট থেকে বিশ্বকাপ শেষ করবে যৌথ আয়োজক যুক্তরাষ্ট্র। তবে বড় ব্যবধানে ইংল্যান্ডকে হারাতে পারলে গ্রুপে বাকি দক্ষিণ আফ্রিকাণ্ডওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র। ওই ম্যাচে উইন্ডিজ বড় ব্যবধানে হারলে, রান রেটে এগিয়ে থেকে টেবিলের শীর্ষ দুটি স্থানে থাকলেই সেমির টিকিট পাবে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কাজটি বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে।

গ্রুপ পর্বে চমক দেখালেও সুপার এইটে নিজেদের সেরাটা দিতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১৮ রানে এবং উইন্ডিজের কাছে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরেছে তারা। তবে শেষ ম্যাচে জয়ের জন্য মরিয়া যুক্তরাষ্ট্র। দলের ওপেনার আন্দ্রিস গাউস বলেন, ‘শেষ ম্যাচে জিতলেও সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা থাকবে আমাদের। যদি রান রেট ভালো থাকে। কিন্তু আগে জিততে হবে। আমাদের জন্য কাজটি অনেক কঠিন। তারপরও অন্যান্য ম্যাচের মত আমরা এবারও জয়ের জন্যই মাঠে নামব।’ অন্যদিকে উইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সুপার এইট পর্ব শুরু করে ইংল্যান্ড। কিন্তু পরের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৭ রানে হেরে যায় তারা। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে জয়ের ভালো সুযোগ হাতছাড়া করে তারা।

দক্ষিণ আফ্রিকার ছুড়ে দেওয়া ১৬৪ রানের টার্গেটে ১৭ ওভারে ৪ উইকেটে ১৩৯ রান তুলে ভালো অবস্থায় ছিল ইংলিশরা। শেষ ৩ ওভারে ২৫ রানের দরকারে ১৭ রানের বেশি তুলতে পারেনি ইংল্যান্ড। ৬ উইকেটে ১৫৬ রানে থেমে ম্যাচ হারে তারা। সেমির দৌড়ে ভালোভাবে টিকে থাকতে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জিততেই হবে ইংল্যান্ডকে। শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ড জিতলে ও অন্য ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে উইন্ডিজ হারলে সেমির টিকিট পাবে ইংলিশরাই। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হেরে গেলেও সেমির সুযোগ থাকবে ইংল্যান্ডের। সেক্ষেত্রে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বড় ব্যবধানে হারতে হবে উইন্ডিজকে। তখন রান রেটে এগিয়ে থাকলে সেমিতে খেলার সুযোগ থাকছে ইংল্যান্ডের। বর্তমানে উইন্ডিজের রান রেট ১.৮১৪, ইংল্যান্ডের ০.৪১২ ও যুক্তরাষ্টের -২.৯০৮।

আবার যদি গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ড ও উইন্ডিজ জয় পায়, তখন দক্ষিণ আফ্রিকাসহ এ তিন দলের রান রেট বিবেচনা করা হবে। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ৪ পয়েন্টের সঙ্গে ০.৬২৫ রান আছে প্রোটিয়াদের। আর শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ড ও উইন্ডিজের মধ্যে কেউ হারলেই সেমির টিকিট পেয়ে যাবে দক্ষিণ আফ্রিকা। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে জয় ছাড়া অন্য কিছুই ভাবছে না ইংল্যান্ড। ওপেনার ফিল সল্ট বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জয় ছাড়া অন্যকিছু ভাবার সুযোগ নেই আমাদের। এ ম্যাচে বড় ব্যবধানে জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামবে দল। যাতে রান রেটও বাড়িয়ে নেওয়া যায়। এজন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলার পরিকল্পনা আমাদের।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close