ক্রীড়া ডেস্ক

  ২৩ জুন, ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্র বিদায়ের পথে

আশা বাঁচিয়ে রাখল উইন্ডিজ

গ্রুপ পর্বে টানা চার ম্যাচ জিতলেও সুপার এইটে প্রথম ম্যাচে হোঁচট খায় দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইংল্যান্ডের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণে শঙ্কা জাগে সেমিতে ওঠার। সেই শঙ্কা দূর করে আসরজুড়ে চমক দেখানো যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে সেমির দৌড়ে টিকে রইল রোভম্যান পাওয়েলের দল।

গতকাল শনিবার সকালে বার্বাডোজে যুক্তরাষ্ট্রকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে উইন্ডিজ। যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া ১২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০.৫ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় যুক্তরাষ্ট্র। এ জয়ে পয়েন্ট টেবিলে এগিয়েছে উইন্ডিজ। নিজদের প্রথম ম্যাচে হারের পরও তারের গ্রুপের টেবিলে দুইয়ে উঠে এসেছে ক্যারিবীয়রা। নিজেদের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বড় ব্যবধানে হারাতে পারলে মিলতে পারে সেমিফাইনালের টিকিট। সেক্ষেত্রে ইংল্যান্ড-যুক্তরাষ্ট্র ম্যাচের দিকেও চোখ রাখতে হতে পারে পাওয়েলের দলকে। অন্যদিকে স্বপ্নের মতো বিশ্বকাপ শুরু করা যুক্তরাষ্ট্রের সেমিতে যাওয়ার আশা একদমই শেষ। সুপার এইটের প্রথম দুই ম্যাচেই বাজেভাবে হেরে বাদ পড়তে যাচ্ছে অ্যারন জোনসের দল।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা খারাপ হয়নি যুক্তরাষ্ট্রের। দলীয় ৩ রানে প্রথম উইকেট হারালেও পাওয়ারপ্লে থেকে ৪৮ রান আসে দলটির। দ্বিতীয় উইকেটে নিতিশ কুমার এবং অ্যান্ড্রিস গাউস গড়েন ৪৮ রানের জুটি। নিতিশকে এলবিডব্লিউ করে সেই জুটি ভাঙেন গুদাকেশ মোটি। ১৯ বলে ২০ রান করেন নিতিশ। পরের ওভারে ফেরেন গাউসও। ৩টি চার ও ১টি ছয়ে ১৬ বলে ২৯ রান করেন গাউস। এ দুই ব্যাটারের বিদায়ের পর আর দাঁড়াতে পারেননি কেউই। মিডল ওভারে যুক্তরাষ্ট্রের ৩ গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটারকে ফিরিয়ে উইন্ডিজকে চালকের আসনে বসান রোস্টন চেজ। লোয়ারঅর্ডার এবং টেলএন্ডারদের একদমই হাত খুলতে দেননি আন্দ্রে রাসেল এবং আলজারি জোসেফ। শেষদিকে আলী খানের ৬ বলে ১৪ রানের ক্যামিওতে কোনোরকমে ১২০ রান পার করে যুক্তরাষ্ট্র।

৪ ওভারে ১৯ রানে ৩ উইকেট নেন চেজ। ৩ উইকেট নেন রাসেলও। ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩১ রানে ২ উইকেট নেন আলজারি জোসেফ। একটি উইকেট গেছে মোটির ঝুলিতে। লক্ষ্য তাড়া করতে মাঠে নেমে যুক্তরাষ্ট্রকে ছয়ের বন্যায় ভাসিয়েছে উইন্ডিজ। ১৩০ রানের মধ্যে ছয় দিয়েই ৬৬ রান করেছে ক্যারিবীয়রা। শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বোলারদের ওপর চড়াও হন উইন্ডিজ ব্যাটাররা। পাওয়ারপ্লেতে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫৮ রান করেন শাই হোপ এবং জনসন চার্লস। পাওয়ারপ্লের পর সপ্তম ওভারে আউট হন চার্লস। তবে এরপরই শুরু হয় মূল টর্নেডো। শেষ ৬৩ রান করতে মাত্র ২৩ বল খেলেছেন এ দুই ব্যাটার। যার বেশিরভাগ রানই এসেছে ছয় থেকে। ৮টি ছয় ও ৪টি চারে ৩৯ বলে ৮২ রান করে অপরাজিত ছিলেন হোপ। ৩টি ছয় ও ১টি চারে ১২ বলে ২৭ রান করেন নিকোলাস পুরান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

যুক্তরাষ্ট্র : ১৯.৫ ওভার, ১২৮/১০

উইন্ডিজ : ১০.৫ ওভার, ১৩০/১

ফল : উইন্ডিজ ৯ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরা : রোস্টন চেজ

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close