ক্রীড়া ডেস্ক

  ১৬ জুন, ২০২৪

বাংলাদেশকে হারাতে চায় নেপাল

কত কাছে কিন্তু কত দূরে! নেপালের ক্রিকেটের রূপকথার মতো এক দিন চলে আসত আর একটু হলেই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শেষ বলে সমীকরণ মেলাতে না পারলেও নিজেদের পারফরম্যান্সে গর্বিত নেপাল অধিনায়ক রোহিত পাউডেল। প্রোটিয়াদের কাঁপিয়ে দেওয়ার বিশ্বাস থেকে বাংলাদেশকে হারাতে চায় তারা। সেন্ট ভিনসেন্টে শেষ বলে ২ রানের চাহিদায় স্নায়ু ধরে রাখতে পারেননি নেপালের ব্যাটার গুলশান ঝা। সুযোগ থাকার পরও রান শেষ করার বদলে আড়ষ্ট হয়ে অল্পের জন্য রান আউট হন তিনি, ১ রানে হেরে জন্ম হয় ট্র্যাজেডির। এই ম্যাচ জিতলে সুপার এইটে যাওয়ার সম্ভাবনাও জাগিয়ে ফেলত হিমালয়ের দেশ। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটা তাদের জন্য হয়ে যেত নকআউট।

সেটা করতে না পেরে টুর্নামেন্ট থেকেই আউট তারা। তবে শেষ ম্যাচ খেলার আগে ঠিকই ভালো করার রসদ পাচ্ছে দলটি। তাদের ক্রিকেটের জন্য টেস্ট খেলুড়ে একটা দেশকে হারাতে পারা হবে বিশাল ব্যাপার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অল্পের জন্য না পারলেও বাংলাদেশকে হারিয়ে সেই আক্ষেপ মেটাতে চায় তারা, ‘আমরা এই পরিস্থিতি (সুপার এইট নিয়ে) নিয়ে অবগত ছিলাম। গতকাল জিতলে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটা নকআউট হতো। এটা যেহেতু হয়নি, পরের ম্যাচ গর্বের জন্য খেলব। আমরা টেস্ট খেলুড়ে দেশকে হারাতে চাই। আজ (শনিবার) হয়নি, আগামী ম্যাচে সেটা করতে চাই। আজ যেই আত্মবিশ্বাস পেলাম সেটা ধরে রাখতে চাই। আমরা যভাবে খেলেছি এটা দেখিয়েছে আমরা এখানে কেন এসেছি। এটা আমাদের বাংলাদেশের বিপক্ষে পরের ম্যাচে আত্মবিশ্বাস জোগাবে।’

প্রোটিয়াদের মূল স্কোয়াডকে হারানোর সুযোগ হাতছাড়া হলেও তুমুল লড়াই করে বিশ্ব ক্রিকেটে শ্রদ্ধা আদায় করেছে নেপাল। অধিনায়ক রোহিতও তাই দল নিয়ে, পারফরম্যান্স নিয়ে বেশ গর্বিত, ‘এই দল নিয়ে আমি অনেক গর্বিত। বিশেষ করে যেভাবে বোলিং ও ব্যাটিং করেছি তাতে গর্বিত।

আমরা খুব কাছে গিয়েছিলাম, চাপের মুহূর্তেও ভালো করছিলাম, শেষে গিয়ে পারিনি। আমরা যদি নিয়মিত বড় মঞ্চে খেলার সুযোগ পাই তাহলে এসব ম্যাচ জিততে পারব।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close