ক্রীড়া প্রতিবেদক

  ২৬ মে, ২০২২

দাপটে দিন পার শ্রীলঙ্কার

দিনের শুরুটা যতটা আশাব্যঞ্জক ছিল শেষে এসেও মিলেছে সেই আশার বাণী, তবে মাঝের প্রায় পুরোটাই হতাশায় ভরপুর। হতাশার পারদ চড়া করায় যতটা না ভূমিকা শ্রীলঙ্কান ব্যাটারদের তার থেকেও বেশি আসলে আবহাওয়ার। বৃষ্টি আর আলোকস্বল্পতাতে যে খেলার অনেকটাই ভেস্তে গিয়েছে। তবে সেটুকুতেই নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করেছেন লঙ্কানরা। বাংলাদেশি বোলাররা যে সুযোগ তৈরি করেননি- সেটাও বলা অন্যায় হবে। তবে ম্যাচ যে এখনো সমতায় রয়েছে সেটা মানতে বোধহয় কোনো শিবিরেরই অপারগতা থাকবে না।

ম্যাচের পাল্লা মাঝের কাঁটা বরাবর থাকলেও দিনের শুরুতে সেই কাঁটা কিন্তু নিজেদের দিকেই ঘুরিয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বাংলাদেশের বোলাররা। বিশেষ করে বলতে হয় দুই প্রান্ত থেকে এবাদত হোসেন-সাকিব আল হাসানের গতি ও ঘূর্ণির মিশেলের কথা। সুইং আদায়ের চেষ্টায় এদিন এবাদত নিজের প্রান্ত থেকে টানা ব্যাটারের অফ স্ট্যাম্পের রাস্তায় বল করে একেবারে কোণঠাসা করে রেখেছিলেন। দিনের শুরুতেই নাইটওয়াচম্যান কাসুন রাজিথার স্ট্যাম্প উপড়ে শুরুটা করে দিয়েছিলেন এবাদতই।

অন্য প্রান্তে সাকিব বল করছিলেন উইকেটের আশায়, বল ভাসিয়েছেন বহুবার। এবাদতের আঁটসাঁট বোলিংয়ে জেরবার শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক তখন যে কোনো মূল্যে বাউন্ডারি বের করার জন্য হন্যে হয়ে উঠেছেন। আর সেটারই মোক্ষম সুযোগ নিলেন সাকিব। আগের বলটাই পঞ্চম স্ট্যাম্পের রাস্তায় ফেললেও সেটা করেছিলেন হালকা জোরের ওপর। ঠিক পরের বলটা একই জায়গায় করলেন, তবে এবার দিলেন ড্রিফট। তাতেই দোটানায় পড়ে যাওয়া করুনারতেœ স্ট্যাম্প খুইয়ে ফিরলেন ৮০ রানে। সাকিব দেখালেন কেন এই লাল বলের খেলায় তিনি বড্ড বেশি জরুরি।

তবে সাকিব-এবাদতদের নিষ্ফলা করতে এরপর আসন গেঁড়ে বসেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। ম্যাথিউজের রুদ্ধদ্বার ব্যাটিংয়ের ফাঁক গলে উইকেট ছিনিয়ে আনার চেষ্টা করে গেলেও বাংলাদেশের বোলাররা ফিরেছেন খালি হাতেই। তাতেই অন্য প্রান্তে নিজের সহজাত খেলা খেলতে পেরেছেন ধনঞ্জয়া। বৃষ্টির কারণে চা-বিরতি বেশ আগেই ঘোষণা করার পর খেলা শুরু হয় বিকাল চারটার দিকে। এরপরই ধনঞ্জয়া নিজের ১০ম টেস্ট ফিফটি পূর্ণ করেন। জুটিটা যখন মনে হচ্ছিল অবিচ্ছেদ্য, তখনই আবার হন্তারকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন সাকিব। দারুণ ড্রিফটে ধনঞ্জয়ার ব্যাট চুমু খেয়ে লিটনের গ্লাভসের মুঠোয় চলে গেলেও শেষ মুহূর্তে গিয়ে বাংলাদেশকে নিতে হয় রিভিউ, আর তাতেই বাজিমাত। শেষ হয় ধনঞ্জয়ার ৫৮ রানের দারুণ ইনিংস। তবে প্রথম ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ম্যাথিউজ আরো একবার ফিফটি পূর্ণ করে সেই ৫৮ রানে উইকেটে আছেন বহাল তবিয়তে। তবে শেষ বিকালে স্পিনের যেই ইঙ্গিত মিলেছে আর সাকিব যেভাবে বলকে কথা বলাতে পেরেছেন তাতে আজ ম্যাচের মোড় নিজেদের দিকে ঘোরানোর আশা রাখতেই পারে বাংলাদেশ।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close