ছায়েদ আহমেদ, হাতিয়া (নোয়াখালী)

  ১৩ আগস্ট, ২০২২

তিন দিন ধরে জোয়ারে ডুবে আছে নিঝুম দ্বীপ

অতিরিক্ত জোয়ারে ৩ থেকে ৪ ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে খ্যাত নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ। টেকসই বেড়িবাঁধ না থাকায় জোয়ারের পানি প্লাবিত হয়ে কয়েক দিন ধরে পানিবন্দি হয়ে রয়েছে সেখানকার মানুষ। লঘুচাপের প্রভাবে সৃষ্ট জোয়ারে দ্বীপটি প্রায় ৩ ফুট পানির নিচে নিমজ্জিত হয়ে আছে।

নোয়াখালীর নিঝুম দ্বীপটি ভৌগোলিক অবস্থানের দিক থেকে এটি হাতিয়া উপজেলার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের তীরবর্তী একটি ইউনিয়ন। পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে যার খ্যাতি রয়েছে। স্বাভাবিক অবস্থায় প্রতি বছর হাজারো পর্যটকের ভিড় থাকে। অতুলনীয় সৌন্দর্যের হাতছানি আর মায়াবী হরিণের চঞ্চলতা উপভোগ করতে আসেন ভ্রমণপিপাসুরা। ওই দ্বীপে রয়েছে প্রায় ৫ হাজার মায়াবী হরিণ। কিন্তু জোয়ারের পানির কারণে বিলীন হয়ে যাচ্ছে হরিণসহ সেখানকার অনেক বন্যপ্রাণী। কমে গেছে হরিণের সংখ্যা। টিকে থাকার সংগ্রামে নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করছে।

জোয়ার এলেই তলিয়ে যায় সমুদ্র উপকূলীয় দ্বীপটি। তখন সেখানকার মানুষের কষ্টের সীমাপরিসীমা থাকে না। কয়েক বছর ধরে বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি উঠলেও এখন পর্যন্ত তার কোনো সাড়া নেই। ফলে অথৈজলে পানিবন্দি থাকাই নিঝুমদ্বীপের বাসিন্দাদের নিয়তি হয়ে গেছে। প্রকৃতির খেয়ালের অসহায় শিকার হয়ে আছে সেখানকার মানুষের জীবন ও জীবিকা। গত তিন দিন ধরে জোয়ারে নিমজ্জিত থাকায় নিঝুমদ্বীপের ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। পানিতে ভেসে গেছে একাধিক খামারের মাছ। বন্ধ হয়ে গেছে রাস্তাঘাটসহ দোকানপাট। এ অবস্থায় নিঝুমদ্বীপে টেকসই বেড়িবাঁধের খুব প্রয়োজন বলে দাবি তুলেছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আফসার দিনাজ।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close