প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১৩ আগস্ট, ২০২২

ট্রাম্পের বাড়িতে পরমাণু অস্ত্রের নথি খুঁজতেই গিয়েছিল এফবিআই

মার্কিন ফেডারেল তদন্ত সংস্থা এফবিআই এজেন্টরা ফ্লোরিডায় সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল পারমাণবিক অস্ত্র সম্পর্কিত নথি খুঁজতেই। যে পরোয়ানার ভিত্তিতে তল্লাশি অভিযান চালিয়েছিল এফবিআই, সেটি প্রকাশ করতেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়েছে। তবে পাম বিচে সাবেক প্রেসিডেন্টের মার-এ-লাগো রিসোর্ট থেকে পারমাণবিক নথি উদ্ধার করা হয়েছে কি-না, তা স্পষ্ট নয়। যদিও ট্রাম্প বলেছেন, পারমাণবিক অস্ত্র সম্পর্কিত নথির বিষয়টি একটি প্রতারণা। খবর রয়টার্সের।

ট্রাম্পের ফ্লোরিডার বাড়িতে গত সোমবার তল্লাশি অভিযান চালানো হয়েছে। যে পরোয়ানার ভিত্তিতে এফবিআই তল্লাশি অভিযান চালিয়েছিল, তা উন্মুক্ত করতে ফ্লোরিডার আদালতের কাছে আবেদন করে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পও জানান, ‘তল্লাশি পরোয়ানা জনসম্মুখে আনার ব্যাপারে যে আবেদন করা হয়েছে, সে ব্যাপারে তিনি কোনো বিরোধিতা করবেন না। অবিলম্বে এটি উন্মুক্ত করা হোক। তল্লাশির পরোয়ানা জনসম্মুখে এলে আমার কোনো আপত্তি নেই।’ একই সঙ্গে তিনি স্মরণ করিয়ে দেন, তল্লাশি অভিযানটি ছিল অপ্রয়োজনীয় ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

ট্রাম্পের বাসভবনে তল্লাশি অভিযান চালানোর কারণ সম্পর্কে ধারণা করা হচ্ছে, হোয়াইট হাউসের গুরুত্বপূর্ণ ও সংবেদনশীল নথি সরিয়ে নিজ বাড়িতে রেখেছিলেন ট্রাম্প, সেই সব নথি উদ্ধারের জন্যই এফবিআই এ অভিযান চালিয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টও বলেছে, এফবিআইয়ের কর্মকর্তারা যেসব নথি খুঁজতে ট্রাম্পের বাসভবন মার-এ-লাগোয় গিয়েছিলেন, তার মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র সম্পর্কিত নথি ছিল। তবে নথিগুলো মার্কিন অস্ত্রের সঙ্গে সম্পর্কিত, নাকি অন্য দেশের তা জানায়নি ওয়াশিংটন পোস্টের সূত্র।

প্রভাবশালী মার্কিন সংবাদমাধ্যমটির সঙ্গে নাম প্রকাশ না করার শর্তে যেসব সূত্র কথা বলেছে, তারা ট্রাম্পের বাসায় অভিযানের বিষয়ে কোনো বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেনি। ট্রাম্প কিংবা বিচার বিভাগের পক্ষ থেকেও পারমাণবিক অস্ত্রের নথি অনুসন্ধানের বিষয়ে কোনো প্রকাশ্য ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

খবরে বলা হচ্ছে, ২০২১ সালের জানুয়ারিতে অফিস ছেড়ে যাওয়ার সময় ট্রাম্প অবৈধভাবে হোয়াইট হাউস থেকে পারমাণবিক রেকর্ডগুলো সরিয়েছিলেন কি-না, তা তদন্তের অংশ হিসেবে ট্রাম্পের বাসায় অভিযান চালায় এফবিআই।

অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড বলেন, চলমান তদন্তের বিশদ বিবরণ নিয়ে আলোচনা করতে পারব না। তবে অনুসন্ধান পরোয়ানার জন্য আদালতের অনুমতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত আমি অনুমোদন করেছি। আর এমন সিদ্ধান্তকে হালকাভাবে নেওয়া হয় না।

ফ্লোরিডায় ট্রাম্পের বাসায় অভিযান চালানোর পর রিপাবলিকানদের মধ্যে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা বেড়ে গেছে। দলের সিনিয়র নেতারা তাকে জোর সমর্থন দিয়েছেন। তাছাড়া সাবেক প্রেসিডেন্টের বাসায় এমন তল্লাশিতে ক্ষুব্ধ হয়েছে রিপাবলিকান শিবির। তবে মার্কিন হাউস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, আইন সবার জন্য সমান।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close