নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৯ জুন, ২০২২

নির্মাণে বিশ্বমান

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের বাকি আর ৫ দিন

স্বপ্ন আকাশ ছুঁয়েছে আগেই; এখন দাঁড়িয়ে দুয়ারে। অপেক্ষার বাকি আর ৫ দিন। সব কাজ গুছিয়ে এনেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে টোল দিয়ে প্রথমবারের মতো পদ্মা সেতু পার হয়েছে গাড়ি। এখন এই সেতু ঘিরে দিন বদলের স্বপ্ন দেখছে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ। তাদের এই স্বপ্নযাত্রার সারথি হতে চান পরিবহন মালিকরাও। কম সময়ে যাত্রীদের দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছে দিতে নামানো হচ্ছে নতুন বাস। তবে টোল দিতে গাড়ি থামাতে হবে না সেতুতে। কারণ টোল বুথ পার হওয়ার সময়ে গাড়ির স্টিকার স্ক্যান করে টাকা কেটে নেওয়া হবে টাচ ফ্রি বা ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন সিস্টেমে। থাকছে কার্ডে টাকা দেওয়ার সুবিধা, রাখা হচ্ছে ম্যানুয়াল পদ্ধতিও। টোল ব্যবস্থাপনা, সফটওয়্যারসহ আধুনিক সব ব্যবস্থা নিয়ে আসছে বিদেশি প্রতিষ্ঠান কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন।

এদিকে, পদ্মা সেতু প্রকল্পের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সদস্য অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় পদ্মা সেতুর কোয়ালিটির (মান) বিষয়ে কোনো ধরনের আপস করা হয়নি। বড় ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলার মতো সক্ষমতার কথা মাথায় রেখেই আমরা সেতু নির্মাণ করেছি।

রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে গতকাল শনিবার ‘শেখ হাসিনার পদ্মা সেতু নির্মাণ : বিশ্ব ব্যবস্থায় বাংলাদেশ তথা উন্নয়নশীল দেশসমূহের এক যুগান্তকারী বিজয়’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

ড. আইনুন নিশাত বলেন, পদ্মার মতো নদীতে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানবে। কত জোরে আঘাত হানতে পারে, সেগুলো মোকাবিলা করবার মতো সক্ষমতা তৈরি করেই আমরা সেতু নির্মাণ করেছি। সেতুর কাঠামো নির্মাণে আমরা ৭০ ফুট পর্যন্ত ড্রেজিং করেছি। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ড্রেজিং মেশিন এনে ড্রেজিং করেছি। প্রত্যেকটা প্রকল্প বাস্তবায়নে রাজনৈতিক সদিচ্ছা প্রয়োজন। রাজনৈতিক কমিটমেন্ট ছাড়া বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।

প্রধানমন্ত্রীর অর্থবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এ সময় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ।

এছাড়াও সেমিনারে আলোচনা করেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. সামসুল আলম, অর্থনীতিবিদ ড. এম খালিকুজ্জামান, সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার ড. গোলাম রহমান ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সাবেক কমিশনার সাহাবুদ্দিন চুপ্পু প্রমুখ।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুুল কাদের বলেন, প্রকল্পের গাড়ি নিয়ে প্রথমবারের মতো টোল দিয়ে শুক্রবার পদ্মা সেতু পার হয়েছি আমরা। ১২০০ টাকা টোল দিয়ে প্রকল্পের প্রথম গাড়িটি পার হয়। টোল ব্যবস্থাপনা ঠিক আছে কি না পরীক্ষার জন্য এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে দেখেছি, সবকিছু ঠিক আছে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন (বিআরটিসি) সূত্র জানায়, নতুন করে কোন কোন পথে বিআরটিসির বাস চালু করা হবে, যাত্রী চাহিদা কেমন এবং কত বাস নামানো দরকার- এসব বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে আজ রবিবার মতিঝিলে সংস্থাটির প্রধান কার্যালয়ে বৈঠক ডাকা হয়েছে। এতে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বিআরটিসি বাসের ডিপো প্রধানরাও থাকবেন। তবে ফেরি পারাপারে চলা বাসের বাইরে নতুন ৬০ থেকে ৭০টি বাস বিভিন্ন পথে চালুর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেন, নতুন বাস নামবে, এটা নিশ্চিত। তবে কত বাস নামানো দরকার এবং কোন কোন পথে চলাচল করবে- এসব বিষয় নিয়ে কাজ চলছে। রবিবার (আজ) পথগুলো চূড়ান্ত হয়ে যাবে। পর্যায়ক্রমে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সব জেলাতেই বিআরটিসির বাস চালুর পরিকল্পনা আছে। বর্তমানে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে ১৯৬টি পথে বিআরটিসির বাস চলাচল করছে। এর বাইরে কলকাতা ও আগরতলা পথেও সংস্থাটির বাস চলে। সব মিলিয়ে সংস্থাটির সচল বাসের সংখ্যা ১ হাজার ৪০০-এর মতো।

বিআরটিএ সূত্র জানায়, গাবতলী থেকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে চলাচলকারী বাসের অনেক কোম্পানি পদ্মা সেতু হয়ে বাস চালাতে আগ্রহ দেখিয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে তাদের ঢাকা শহরের ওপর দিয়ে চলতে হবে। এখন পর্যন্ত বিআরটিএতে এ বিষয়ে আবেদন পড়েনি। বর্তমানে মাওয়া হয়ে ১৩টি পথে বেসরকারি কোম্পানির বাস চলাচলের অনুমতি আছে।

বরিশাল বাস মালিক সমিতি জানায়, তাদের ধারণা, প্রথম পর্যায়ে বরিশাল থেকে ঢাকায় প্রায় অর্ধশত বিলাসবহুল এবং একশর মতো সাধারণ বাস চলবে। ধীরে ধীরে সব কোম্পানিই বাস চালু করবে। তবে এখন পর্যন্ত তাদের সঙ্গে শুধু কয়েকটি কোম্পানির বাস মালিকরা যোগাযোগ করেছে।

পদ্মা সেতু দিয়ে বরিশাল থেকে ঢাকার সায়েদাবাদ পর্যন্ত যাতায়াতের জন্য মে মাস থেকে ইলিশ পরিবহনের দুটি এসি বাস নামানো হয়েছে। সেতু উদ্বোধনের আগ পর্যন্ত এগুলো মাওয়া পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করছে। এই সপ্তাহেই ইউনিক পরিবহন বরিশালে নিয়ে আসতে চলেছে তাদের বাস। সেতু উদ্বোধন হলেই এগুলো কুয়াকাটা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করবে। মাঝে বন্ধ হয়ে যাওয়া গ্রিন লাইন পরিবহনও আবার বাস চালু করবে।

হানিফ পরিবহনের বরিশাল কাউন্টারের ম্যানেজার রানা তালুকদার বলেন, ‘পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর পরই নতুন ১০টি বাস যাত্রীসেবায় যুক্ত করা হবে। এর মধ্যে চারটি এসি ও ছয়টি নন-এসি বাস। সব বাসই বিলাসবহুল। যাত্রীদের সর্বোত্তম সেবা দিতে আমাদের সব চেষ্টা চলছে।’

সাকুরা পরিবহনের পরিচালক হুমায়ুন কবির জানান, এত দিন তাদের কোম্পানির ৭০টি বাস দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া হয়ে ঢাকা থেকে বরিশালে যাতায়াত করত। সেতু চালু হলে এসি বাসের সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে।

পদ্মা সেতু চালু হলে বরিশাল বিভাগে প্রথমবারের মতো বাস চালু করবে শ্যামলী পরিবহন। এর ব্যবস্থাপক আফজাল হোসেন বলেন, সেতু চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বরিশালের অন্তত ১৪টি রুটে আমাদের বাস দেওয়া হবে। বেশিরভাগই নন-এসি হলেও এগুলো বিলাসবহুল বাস।

জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক কিশোর কুমার দে বলেন, সেতু চালুর আগে আমাদেরও প্রস্তুতির বিষয় রয়েছে। দফায় দফায় আমাদের আলোচনায় বসতে হচ্ছে। গত মাস থেকে ইলিশ পরিবহনের দুটি বাস চালু হয়েছে। ইউনিক পরিবহনও প্রস্তুত। গ্রিন লাইনও আবার বাস সার্ভিস চালু করবে।

গাড়ি না থামিয়েই দেওয়া যাবে টোল : টোল দিতে পদ্মা সেতুতে গাড়ি থামাতে হবে না। কারণ টোল বুথ পার হওয়ার সময়ে গাড়ির স্টিকার স্ক্যান করে টাকা কেটে নেওয়া হবে টাচ ফ্রি বা ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন সিস্টেমে। তবে পাশাপাশি থাকছে কার্ডে টাকা দেওয়ার সুবিধা, রাখা হচ্ছে ম্যানুয়াল পদ্ধতিও। ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকার এই সেতুতে চলাচল শুরুর প্রথম দিন থেকেই দিতে হবে টোল। এরই মধ্যে ১৩ ধরনের যানবাহনের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে টোলহার। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের সমীক্ষায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের ২১ জেলার যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম হবে এই সেতু। আর এতে দিনে চলবে ২৪ হাজার যানবাহন। বিপুল সংখ্যার এই যানবাহন থেকে টোল নেওয়ার পদ্ধতি জানিয়েছেন সেতু সচিব মনজুর হোসেন।

টোল নিতে সেতুর দুই প্রান্তে থাকছে সাতটি করে ১৪টি লেন। টোল আদায় ও সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে কোরিয়া এক্সপ্রেস করপোরেশন ও চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানির সঙ্গে এরই মধ্যে চুক্তি করেছে সেতু বিভাগ। টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পার হতে সব মিলিয়ে সময় লাগবে ৬ মিনিট। অথচ এ দূরত্ব ফেরিতে পারাপারে সময় লাগত অন্তত দেড় ঘণ্টা।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close