প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ২২ জানুয়ারি, ২০২১

সেরামের কারখানায় আগুন, মৃত্যু ৫

ক্ষতি হয়নি কোভিশিল্ডের

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার (এসআইআই) করোনাভাইরাসের টিকা কোভিশিল্ডের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। মহারাষ্ট্রের পুনের মঞ্জরি এলাকায় গড়ে ওঠা এই প্রতিষ্ঠানটি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ‘কোভিশিল্ড’ উৎপাদন করছে। তবে সেরামের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, যেখানে আগুন লেগেছে, সেখান থেকে অনেকটা দূরে টিকা তৈরি করার পাশাপাশি মজুদ রাখা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে কারখানার পঞ্চমতলায় আগুন লাগে। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় আশপাশের এলাকা। সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই আতঙ্ক দেখা দেয়। গোটা দেশে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। তবে সেরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদর পুনাওয়ালা বলেছেন, করোনাভাইরাসের টিকা উৎপাদনে এ অগ্নিকান্ডের কোনো প্রভাব পড়বে না। সূত্র : এনডিটিভি ও হিন্দুস্তান টাইমস।

মহারাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধমন্ত্রী রাজেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, আগুন লেগেছিল, কিন্তু কোভিড ভ্যাকসিনের প্ল্যান্টে আগুন লাগেনি। ঘটনাস্থলে দমকল বাহিনীর ১৪টি ইউনিট কাজ করে ঘণ্টাখানেক। তারপর আগুন ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রণে আসে। পুনের মেয়র মুরলিধর মোহল জানিয়েছেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর উদ্ধার করা হয় ওই পাঁচজনের লাশ। তিনি বলেন, ‘সম্ভবত নির্মাণাধীন বাড়িটির ছয়তলায় আটকে পড়েছিলেন তারা। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় তারা আর বেরুতে পারেননি। সেরাম কর্মকর্তা আদর পুনাওয়ালা বলেন, ‘আগুনে কয়েকটি তলা ভস্মীভূত হয়েছে। আমি আশ্বস্ত করতে চাচ্ছি যে, এতে কোভিশিল্ড উৎপাদনে কোনো প্রভাব পড়বে না।’

------
আগুন লাগার ঘটনায় সবচেয়ে বেশি উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল যা নিয়ে, সেই টিকা তৈরি ও মজুদ করার জায়গাটি নিরাপদেই আছে বলে আশ্বস্ত করেছেন পুনের পুলিশ কমিশনার।

পুনের পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত জানিয়েছেন, অগ্নিদগ্ধ হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। ইনস্টিটিউটের যে জায়গায় করোনাভাইরাসের টিকা কোভিশিল্ডের উৎপাদন চলছে, সেখান থেকে ঘটনাস্থল কয়েক মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত। তবে কীভাবে ওই ভবনে আগুন লাগল তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, কারখানা ভবনে যন্ত্রপাতি পুনঃসংযোগের সময় সেখান থেকে ছিটকে আসা আগুনের স্ফূলিঙ্গের কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এদিকে সেরামের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আদর পুনেওয়ালা টুইটার বার্তায় বলেন, ‘আমরা দুঃখজনক খবর পেলাম। আগুনে কয়েকজন মারা গেছেন। তাদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।’

 

 

"

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close