বিনোদন প্রতিবেদক

  ১৬ আগস্ট, ২০২২

সুজয় শ্যামের সুরে ছয় গান, সঙ্গে অপু

গতকাল ছিল জাতীয় শোক দিবস। বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হারানোর দিন। দিনটিতে দেশের প্রায় সব চ্যানেলেই ছিল বিশেষ আয়োজন এই শোক দিবস ঘিরেই। বাংলাদেশ টেলিভিশনেও ছিল নানা আয়োজন। সেই ধারাবাহিকতায় আজ দুপুর ১২টার সংবাদের পর বিটিভিতে প্রচার হবে শোক দিবসের বিশেষ সংগীতানুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানে ছয়টি মৌলিক গান প্রচার হবে। ছয়টি গানেরই সুর করেছেন সুজেয় শ্যাম, আর তারই সহকারী সংগীত পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন সংগীতশিল্পী ও সংগীত পরিচালক অপু আমান। অনুষ্ঠানে সুজেয় শ্যামের সুরে অপু আমান নিজেও একটি গান গেয়েছেন। বাকি পাঁচটি গান গেয়েছেন রফিকুল আলম, প্রিয়াঙ্কা গোপ, আতিক, মেজবাহ বাপ্পি ও প্রিয়াঙ্কা বিশ্বাস। সুজেয় শ্যাম ও অপু আমানের যৌথ প্রয়াসেই এই গানগুলো হয়ে উঠেছে শিল্পীদের কণ্ঠে শ্রুতিমধুর। গানগুলো লিখেছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার (দুটো), পান্না লাল দত্ত (তিনটা) ও জাহাঙ্গীর আলম।

সুজেয় শ্যাম বলেন, ‘রফিকুল আলম থেকে শুরু করে এই প্রজন্মের যারাই গানগুলো গেয়েছেন প্রত্যেকেই দরদ দিয়ে গেয়েছেন। প্রত্যেকেই গানের প্রতি এত ডেডিকেটেড যে, তাদের একবার বুঝিয়ে দিলেই তারা বিষয়টা বুঝে নিতে পারেন যে, আমি আসলে কী চেয়েছি। আর অপু দীর্ঘদিন ধরেই আমার সঙ্গে কাজ করছে। যে কারণে একটি গানের সংগীতায়োজনে কী চাই, তা অপু ভালো বুঝতে পারে। আমি তাকে স্নেহ করি। অপু গানকে মনে লালন করে, ধারণ করেই গানের ভুবণে আছে। তার জন্য আমার অনেক আশীর্বাদণ্ডস্নেহ সব সময়ই। তার বিনয় আমাকে মুগ্ধ করে।’

অপু আমান বলেন, ‘শ্রদ্ধেয় সুজেয় স্যারের সান্নিধ্যে থেকে তার সৃষ্ট সুর নিয়ে সংগীতায়োজন করতে পারাটা আমার জন্য পরম সৌভাগ্যের এবং আসলে কতটা আনন্দের, তা ভাষায় প্রকাশের নয়। তিনি শ্রদ্ধেয় সুধীন দাশগুপ্তের ছাত্র। সুজেয় স্যারের সুরের ভেতরে নোটেশনের খেলাটা দারুণ চমৎকার। কীভাবে তিনি একটি সুরের ভেতর এত নোটের ব্যবহার করেন, তা আমাকে রোমাঞ্চিত করে। এই বয়সে এসেও যে ধৈর্য নিয়ে খুব হাস্যোজ্জ্বল মুডে তিনি যেভাবে কাজ করেন অনেক সময় আমি ক্লান্ত হয়ে গেলেও তিনিই আমাকে সাহস দেন। তার সান্নিধ্য, সংস্পর্শ আমার অনেক বড় প্রাপ্তি।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close