বেলাল হুসাইন

  ১০ জুলাই, ২০২৪

ছন্দ ও সুরে নিজেকে বিকশিত করছেন শেখ মূসা

মুহাম্মদ শেখ মূসা একজন তরুণ প্রতিভাবান লেখক, কবি ও গীতিকার। তিনি মুখে বলা থেকে কলমে প্রকাশ করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। প্রাথমিকভাবে লেখালেখির শুরুটা ছড়া- কবিতা দিয়ে হলেও গদ্য, মুক্তগদ্য ও প্রবন্ধ লেখেন বেশ চমৎকার। তার লেখা পাঠ করে যেকোনো পাঠকই হবেন অভিভূত। পুরোটা লেখা জুড়ে থাকে শুধু মুগ্ধতার ছড়াছড়ি। প্রতিটি লেখায় বাস্তবতা, আবেগ, ভালোবাসা ও স্নিগ্ধ অনুভূতির মিশেলে হয়ে ওঠে অন্যরকম সুখপাঠ্য।

তিনি জাতীয় শিশু-কিশোর পত্রিকা ‘নকীব’ সাহিত্য প্রতিযোগিতা ২০২২-এ সিরাতবিষয়ক প্রবন্ধ লিখে সফলতার দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে আপন প্রতিভাকে বিকশিত করেন। এরপর মাসিক, দ্বি-মাসিক, ত্রৈমাসিক লিটল ম্যাগাজিন ও দৈনিক জাতীয় পত্রিকাগুলোয় একের পর এক নিয়মিত লেখা প্রকাশ করতে থাকেন।

বর্তমানে গীতিকবিতা লেখায় মনোযোগী হয়ে উঠছেন। তার লেখা বেশ কয়েকটি নাশিদ শ্রোতাদের ভালোবাসা কুড়িয়েছে। নাতে রাসুল (সা.) লেখায় নিজের ভেতরের টান অনুভব করেন। তার লেখা পরবর্তী সংগীতগুলো রিলিজ হওয়ার নেপথ্যে- জনপ্রিয় শল্পী আবু রায়হানের কণ্ঠে আসছে মরমী নাশিদ ‘হায়াতের দিন’, কলরবের সিনিয়র শিল্পী ওমর আব্দুল্লাহর কণ্ঠে ‘হুব্বে সাহাবা জিন্দাবাদ’ ও হলিটিউনের পরিচালক বদরুজ্জামানের সুরে ও শরীফ মুহাম্মদের কণ্ঠে ‘রওজার কিনারায়’। এ ছাড়া স্টুডিও ভোকাল ও স্টুডিও তালহা থেকে আসছে আরো দুটি সংগীত।

লেখকের ইচ্ছে, ইসলামি সাংস্কৃতিক অঙ্গনটাকে শুদ্ধ ও সুস্থ চিন্তাধারার নাশিদ উপহার দেওয়ার। দিকে দিকে সত্যের মশাল জ্বালতে চান। বাংলার নানা প্রান্তরে ছন্দ ও সুরের মাধ্যমে পৌঁছাতে চান দ্বীনের বার্তা।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close