ক্যাম্পাস ডেস্ক

  ১০ মে, ২০২১

সেঞ্চুরি পার করল ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি

দি ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি একটি অবিস্মরণীয় মাইলফলক স্পর্শ করল। গত বৃহস্পতিবার রাতে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি ফেসবুক লাইভের ১০০তম পর্ব উদ্যাপন উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড সহিদ আকতার হুসাইন এ কথা বলেন। গত শনিবার ৯ মে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

‘ফেসবুক লাইভের সেঞ্চুরিতে প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা’ বিষয়ে বৃহস্পতিবারের বিশেষ পর্বে সভাপতিত্ব করেন সহিদ আকতার হুসাইন। ফেসবুক পেজে এমন আয়োজনের জন্য ইউনিভার্সিটির জনসংযোগ বিভাগ ও স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স বিভাগকে ধন্যবাদ জানিয়ে উপাচার্য বলেন, ‘আমার জানা মতে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই এমন লাইভ সেশন পরিচালনা করেনি। লাইভগুলোতে ইতিহাস, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সংস্কৃতি, আন্তর্জাতিক অবস্থা ও করোনা এসব বিষয় উঠে এসেছে বিভিন্ন পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যুক্ত হওয়া বিশিষ্ট ব্যক্তিদের আলোচনায়’।

------
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি ফাউন্ডেশন ও ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মো. ইসমাইল জবিউল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক তাহমিনা আহমেদ, ফ্যাকাল্টি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির ডিন অধ্যাপক ড মাহফুজুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজলা ফাতমী ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আবু মোহাম্মাদ আবদুল্লাহ। শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী মিফতাউল জান্নাতি সিনথিয়া। অনুষ্ঠানটি গবেষণা ও উপস্থাপনা করেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির জনসংযোগ বিভাগের পরিচালক সাজেদ ফাতেমী।

ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মো. ইসমাইল জবিউল্লাহ বলেন, ‘ফেসবুক লাইভে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতদের অংশগ্রহণ অনুষ্ঠানকে অনেক বেশি সমৃদ্ধ করেছে। সেই সঙ্গে এ দেশের মন্ত্রী, ছয়জন উপাচার্য, দেশ-বিদেশের নামি-দামি চিকিৎসক, গবেষক, বিজ্ঞানী, বুদ্ধিজীবী, শিল্পী, গীতিকার, সংগীত পরিচালক, সাহিত্যিক, শিক্ষক, পুলিশ, সাংবাদিক, পরিবেশ বিজ্ঞানী, রাজনৈতিক বিশ্লেষক- সবাই এসে আমাদের অনেক বেশি সম্মানিত করেছেন’। এত কম সময়ে এতগুলো পর্ব সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য ইউনিভার্সিটি প্রশাসন ও জনসংযোগ বিভাগকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক তাহমিনা আহমেদ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেসবুক পেজ থেকে ১০০ লাইভ সম্পন্ন হওয়ায় আমি খুব গর্বিত। তবে এই লাইভগুলো আরো ভালো করতে ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণ আরো বেশি প্রয়োজন। সেইসঙ্গে ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের কথাও শুনতে চাই’। ফ্যাকাল্টি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির ডিন অধ্যাপক ড মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘করোনাকালে ফেসবুকে এক দেড় ঘণ্টা করে এত লাইভ করতে পারা অনেক চ্যলেঞ্জিং ব্যাপার ছিল। সেই চ্যালেঞ্জ সহজেই মোকাবিলা করে সম্পন্ন করা এ লাইভ অনুষ্ঠানগুলো বিশ্ববিদ্যালয় ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে একটা যোগসূত্র তৈরি করেছে’।

অনুষ্ঠানটির পরিকল্পনা ও সমন্বয়কারী এবং উপস্থাপক সাজেদ ফাতেমী বলেন, ‘আজ আমার জন্য খুব আনন্দের দিন। ফেসবুকে নিয়মিত লাইভ অনুষ্ঠান ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে এবারই প্রথম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শুরুটা করেছিলাম ২০১৯ সালের ৭ মে। ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে। ২০২০ সালের মার্চে শুরু হয় লকডাউন । ইউনিভার্সিটির ব্র্যান্ডিং কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে এই লাইভ আবার শুরু করি ২৯ জুন। নভেম্বরে এসে আমাদের সঙ্গে যুক্ত হয় এ দেশের অন্যতম অনলাইন নিউজ পোর্টাল জুমবাংলাডটকম। তারপর থেকে কোনো কোনো পর্বের ভিউ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এভাবে দুই বছরে চলে এসেছি ১০০তম পর্বে’। দীর্ঘ পথচলায় সহযোগিতা দেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগের শিক্ষক- শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সাজেদ ফাতেমী।

প্রথম পর্ব থেকেই গবেষণা, উপস্থাপনা ও সমন্বয়ের কাজ করে আসছেন সাজেদ ফাতেমী। তাকে বিশেষ সহযোগিতা দিয়ে আসছেন ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজলা ফাতমী, স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স অফিসের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ও ক্রিয়েটিভ সেকশনের ডেপুটি ডিরেক্টর আতিকুজ্জামান লিমন। অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাকুল হায়দারের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close