প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ০১ অক্টোবর, ২০২২

কংগ্রেস প্রধান পদে শশীর বিপরীতে মল্লিকার্জুন

বহু নাটকীয়তা শেষে কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট পদের প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারীদের তালিকা নিশ্চিত হয়েছে। দিগি¦জয় সিং কিংবা মুকুল ওয়াসনিক নয়, শশী থারুরের বিপরীতে লড়বেন গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ মল্লিকার্জুন খাড়গে। স্থানীয় সময় শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দলীয় মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিনে মল্লিকার্জুন খাড়গে তার মনোনয়ন দাখিল করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, কংগ্রেসের একটি সূত্র জানিয়েছে, দলীয় প্রধানের পদে লড়তে রাজ্যসভার পদ থেকে পদত্যাগ করতে পারেন মল্লিকার্জুন খাড়গে। কারণ, কংগ্রেসের দলীয় নীতি অনুসারে কোনো এক ব্যক্তি একই সময় দলীয় ও রাষ্ট্রীয় কোনো দায়িত্বে থাকতে পারবেন না। কংগ্রেসের উচ্চপর্যায়ের দলীয় নেতাদের মধ্যে ভূপিন্দর সিং হুদা, দিগি¦জয় সিং, পৃথ্বীরাজ চৌহান, সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ কে অ্যান্টনি, দলীয় মুখপাত্র এ এম সিংভি এবং সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মাকেন শশী থারুরের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে খাড়গের নাম প্রস্তাব করেন।

খাড়গে স্থানীয় সময় মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময় শুক্রবার বিকাল ৩টার আগেই তার মনোনয়ন দাখিল করেন। তার সঙ্গে তৃতীয় প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেন ঝাড়খণ্ডের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কে এন ত্রিপাঠি। মধ্যপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এবং কংগ্রেসের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিগি¦জয় সিং মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেও তা জমা দেননি। শুক্রবার সকালে মল্লিকার্জুন খাড়গের সঙ্গে এক বৈঠকের পর দিগি¦জয় সিং নিজের নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেন।

কংগ্রেসের ওই সূত্র আরো জানিয়েছে, গত রাতে কংগ্রেসের আরেক প্রবীণ নেতা কেসি বেনুগোপাল মল্লিকার্জুন খাড়গেকে জানান, কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নেতারা চান খাড়গে যেন দলীয় প্রধানের পদে নির্বাচন করেন। খাড়গের প্রতি গান্ধী পরিবারের সমর্থন রয়েছে- এমন গুজব থাকলেও গান্ধী পরিবার জানিয়েছে, তারা এ বিষয়ে নিরপেক্ষ থাকবে।

এদিকে, গতকাল কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই না করার ঘোষণা দেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী ও প্রবীণ কংগ্রেস নেতা অশোক গেহলট। রাজস্থানে দলীয় বিধায়কদের বিদ্রোহ প্রশমিত করতেই ‘নৈতিক দায়িত্ব’ হিসেবে তিনি দলীয় প্রেসিডেন্টের পদে নির্বাচন থেকে নিজেকে তুলে নিয়েছেন বলে জানান। অশোক গেহলট বলেন, তিনি দলীয় প্রধানের পদে লড়ার বিষয় নিয়ে রাজস্থানের রাজনীতিতে উদ্ভূত সংকটের জন্য সোনিয়া গান্ধীর কাছে ক্ষমা চাইবেন। সোনিয়ার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে অশোক গেহলট নিজের মুখ্যমন্ত্রিত্ব নিশ্চিত করতে চাইছেন বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তারা অভিমত প্রকাশ করেছেন যে, যদিও অশোক গেহলট বলেছেন কংগ্রেসের প্রধান হিসেবে সোনিয়া গান্ধীই নির্ধারণ করে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী পদে কে থাকবেন, তার পরও গেহলট এ পদক্ষেপ নিয়ে নিজের মুখ্যমন্ত্রিত্ব নিশ্চিত করতে চাইছেন- এটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close