প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২

জান্তাবিরোধীদের পোস্টে মন্তব্য করলেই ১০ বছর জেল

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জান্তাবিরোধীদের পোস্ট অথবা অন্য কোনো কনটেন্টে রিঅ্যাক্ট বা শেয়ার করলে ৩ থেকে ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে বলে মিয়ানমারের সাধারণ জনসাধারণকে সতর্ক করেছে মিয়ানমারের জান্তা বাহিনী। এছাড়া অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করলে পরিণতি আরো ভয়াবহ হতে পারে বলে সতর্ক করেছে জান্তা সরকার। খবর রয়টার্সের। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিরোধ আন্দোলনের প্রতি নৈতিক সমর্থনের বিরুদ্ধে সতর্ক করে মিয়ানমারের জনগণকে এমন হুমকি দিয়েছে জান্তা সরকার।

মিয়ানমারে ক্ষমতাসীন জান্তার তথ্যমন্ত্রী ও মুখপাত্র জেনারেল ঝাও মিন তুন বলেন, দেশকে অস্থিতিশীল এবং নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করতেই তহবিল চেয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে সন্ত্রাসীরা। এজন্য তাদের প্রতি সমর্থন ও সমর্থনকারীদেরও কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে। জাতীয় ঐক্যের সরকার (এনইউজি) অথবা তাদের সশস্ত্র সংগঠন পিপলস ডিফেন্স ফোর্সেসের (পিডিএফ) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কর্মকাণ্ডে সমর্থন জানালে ৩ থেকে ১০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। এমনকি যারা সামান্য পরিমাণ অর্থ দিয়েও সহায়তা করবে, তাদের অবস্থা হবে আরও ভয়াবহ।

তিনি আরও বলেন, আপনি যদি সন্ত্রাসীদের অর্থ সহায়তা দেয়া অথবা তাদের কাজ সমর্থন করেন, তাহলে আপনাকে কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। আমরা নিরীহ বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার জন্যই এটি করছি।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে এক সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলে নেয়ার পর থেকেই ব্যাপক সহিংসতা চলছে দেশটিতে। তার পর থেকেই জান্তাবাহিনীর সাথে দেশটির গণতন্ত্রপন্থী বিভিন্ন সংগঠন ও ছায়া সরকারের নেতৃত্বাধীন মিলিশিয়া গোষ্ঠীগুলোর সংঘাত অব্যাহত রয়েছে। অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারের জান্তা-বিরোধীরা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের বার্তা ছড়িয়ে দিতে চেষ্টা করছে। এছাড়া দেশটির নাগরিক সাংবাদিকরা প্রায়ই সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে গণতন্ত্রকামীদের প্রতিবাদ ও জান্তার নৃশংসতার ছবি পোস্ট করেন।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close