নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৬ জুন, ২০২৪

গর্বিত বাবা অ্যাওয়ার্ড পেলেন ২৫ জন

গর্বিত বাবা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দেশে তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ‘ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড গর্বিত বাবা অ্যাওয়ার্ড ২০২৪’। সফল সন্তানদের নিয়ে গর্বিত এমন ২৫ জন বাবাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়। বিশ্ব বাবা দিবসকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেল মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গর্বিত বাবা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এবং ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেডের সহযোগিতায় বাবা দিবস উপলক্ষে গর্বিত বাবাদের সম্মানিত করতে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ, কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সাবেক ফুটবলার আ. গাফফার, ঢাকা ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আশরাফুজ্জামান খান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গর্বিত বাবা ফাউন্ডেশনের সভাপতি এবং ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিলীপ কুমার আগারওয়াল। শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য দেন গর্বিত বাবা ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি ও প্রোগ্রাম পরিচালক মেহেদী হাসান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাবার স্মৃতিচারণ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, যখন আমি ছাত্র রাজনীতি করতাম, তখন বাবা লুকিয়ে আমার বালিশের নিচে টাকা দিয়ে যেত। আমি একবার এক্সিডেন্ট করেছিলাম। তখন বাবা সারাক্ষণ আমার পাশে বসে থাকত। একজন সন্তানের মানুষ হওয়ার পেছনে মায়ের সঙ্গে বাবারও অবদান অনেক।

পরে গর্বিত বাবাদের নিয়ে বাবা দিবসের কেক কাটেন অতিথিরা। বাবাদের হাতে অ্যাওয়ার্ড এবং উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। এ বছর ‘ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড গর্বিত বাবা অ্যাওয়ার্ড’ প্রাপ্তরা হলেন- পর্বতারোহী ও চিকিৎসক বাবর আলীর বাবা লেয়াকত আলী, লেখক সাদাত হোসাইনের বাবা হেদায়েত উল্লাহ বেপারি, মঞ্চ অভিনেত্রী ও নির্দেশক এষা ইউসুফের বাবা নাসির উদ্দিন ইউসুফ, চাষাবাদ বিশেষজ্ঞ ও গ্রিন সেভার্সের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ রকিবুল আহসান রনির বাবা আহসান কবির, গীতিকার এবং করপোরেট ব্যক্তিত্ব তুষার হাসানের বাবা আবদুর রহমান, চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং ব্যারিস্টার সিয়াম আহমেদের বাবা নাসির উদ্দিন, জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির বাবা মো. সিরাজুল হক, নেচার কনজারভেনসি অব কানাডায় কর্মরত সৈয়দা জারীন রাফার বাবা সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, অভিনেত্রী এবং মডেল রুনা খানের বাবা ফরহাদ খান, লেখক ও সাংবাদিক মোহসীন উল হাকিমের বাবা মেজর মুহাম্মদ আবদুল হাকিম (অব.), লেখক ও সাংবাদিক মোস্তফা মামুনের বাবা মোহাম্মদ আবদুল হান্নান, অভিনেত্রী ও মডেল সাবিলা নূরের বাবা নূরুর করিম, তিন ছেলে যথাক্রমে মো. আবরারুল হক ওয়ালী, মো. জুনায়েদ হাফিজ ওয়ালি, মো. তাহমিদ ইয়ামিন ওয়ালির বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এস এম অলিউর রহমান, সমাজকর্মী ও প্রতিষ্ঠাতা সবার জন্য পড়া উন্মুক্ত পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা মো. শাহাদত হোসেনের বাবা মো. সোবাহান খাঁন, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও মডেল তমা মির্জার বাবা মির্জা আবু জাফর, জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় তাসকিন আহমেদের বাবা আবদুর রশীদ, মার্কেটিয়ার মো. তাজদিন হাসানের বাবা মো. এনামুল হাসান, নারী উদ্যোক্তা ও সমাজকর্মী তাকিয়া সুলতানা নোভার বাবা আনোয়ারুল আলম মিলন, তিন ছেলে যথাক্রমে খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, খন্দকার শফিকুল ইসলাম ও খন্দকার মাহমুদুল হকের বাবা মো. শাহজাহান খন্দকার, অভিনেত্রী ও মডেল সাফা কবিরের বাবা হুমায়ুন কবির সবুজ, লেটস টক মেন্টাল হেলথের প্রেসিডেন্ট আনুশা চৌধুরীর বাবা অজিত চৌধুরী, চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং মডেল সৌম্য জ্যোতি ও দিব্য জ্যোতির বাবা বৃন্দাবন দাস, ডা. বিপাশা নাজনীন ও জান্নাতুল ফেরদৌসের বাবা মো. আখতারুল হক, আর্কিটেক্ট সাইদা আক্তার মুমুর বাবা মোহাম্মদ শাহ আলম খান, তথ্যপ্রযুক্তিবিদ ও উদ্যোক্তা শাহরিয়ার খানের বাবা মুক্তিযোদ্ধা ড. মো. জামান খান।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close