লাকসাম-মনোহরগঞ্জ (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

  ১৬ জুন, ২০২৪

লাকসামে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম

সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে কুমিল্লার লাকসাম উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা এবং জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, আমি আপনাদের সন্তান। আপনারা ১৯৯৬ সালে আমাকে এমপি নির্বাচিত করেছেন। আমি এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে সুখে-দুঃখে আপনাদের পাশে থেকেছি। অন্যায়ের সঙ্গে কখনো আপস করিনি।

গতকাল শনিবার লাকসাম বঙ্গবন্ধু পৌর অডিটোরিয়াম মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, সততার সঙ্গে আমার এলাকার উন্নয়ন করেছি। আমি এমপি নির্বাচিত হওয়ার আগে লাকসাম পৌরসভার বাহিরে এক কিলোমিটার পাকা রাস্তাও ছিল না। আমি এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর ১৫০ কিলোমিটার রাস্তা পাকা নির্মাণ করেছি। ২০০৮ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে আপনারা আমাকে আবার এমপি নির্বাচিত করেছেন। ২০১৮ সালে এমপি হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছেন। আমি প্রধানমন্ত্রীর সঠিক নির্দেশনায় ও সুপরামর্শে আমার মন্ত্রণালয় পরিচালনা করেছি। এবার আবারও এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী আমাকে দ্বিতীয় মেয়াদে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছেন। এত বড় মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আমি সব সময় আপনাদের খোঁজ-খবর রাখছি। লাকসাম ও মনোহরগঞ্জে বহু উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নপূরণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ সময় তিনি আরো বলেন, আমি আমার নির্বাচনী আসনে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের কখনো ছাড় দেইনি। মাদকের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান জিরো টলারেন্স। মাদকের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আপনাদের আমি হৃদয় দিয়ে ভালোবাসি। আপনারা যারা জনপ্রতিনিধি রয়েছেন তাদের বলব, আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব আপনারা সঠিকভাবে পালন করবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে শত বছরের খাদ্য সংকটকে দূর করেছেন। আজ আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ। আমাদের খাদ্য আমদানী করতে হয় না এখন। দেশের আপামর জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে প্রতিষ্ঠা করেছেন কমিউনিটি ক্লিনিক। এখন প্রান্তিক অঞ্চলের মানুষ আর বিনা চিকিৎসায় মারা যায় না।

বিশ্ব পরিমণ্ডলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে উলে¬খ করে মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম আরো বলেন, ‘বাংলাদেশকে একসময় তলাবিহীন ঝুড়ির সঙ্গে তুলনা করা হতো। অথচ গত এক দশকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে প্রভূত উন্নয়ন হয়েছে, তাতে শুধু দারিদ্র্য বিমোচন নয়, কিংবা অর্থনৈতিক উন্নয়ন নয়, দেশের ভাবমূর্তিও বিশ্ব পরিমণ্ডলে উজ্জ্বল হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লাকসাম উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউনুস ভুঁইয়া। এ সময় আরো বক্তব্য দেন লাকসাম পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি তাবারক উল্লাহ কায়েস। লাকসাম পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম হিরার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন লাকসাম পৌরসভা মেয়র অধ্যাপক মো. আবুল খায়ের, লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অহিদ উল্লাহ মজুমদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী মজুমদার, লাকসাম উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পড়সী সাহাসহ রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিরা। পরে সিরডাপ (CIRDAP) গভর্নিং কাউন্সিলের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামকে লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close