বদরুল আলম নাঈম, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ)

  ২৬ জানুয়ারি, ২০২৩

কটিয়াদীর কুড়িখাই নদীর জরাজীর্ণ সেই সেতু

একটি সেতু কটিয়াদী পৌর এলাকার বোয়ালিয়া থেকে মুমুরদিয়া ইউনিয়নের শিবনাথ সাহার বাজার হয়ে শাহ শামছুদ্দিন সুলতান বোখারী (র.) মাজারে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। সেতুটি স্বাধীনতার আগে কুড়িখাই নদীর ওপর নির্মাণ করা হয়। যুদ্ধের সময় পাক হানাদার বাহিনী স্থানীয় কিছু নিরীহ লোককে ধরে এনে সেতুর ওপর দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়।

স্বাধীনতার ইতিহাসের সাক্ষী কুড়িখাই সেতুটি এখন জরাজীর্ণ অবস্থায় রয়েছে। চওড়া খুব বেশি নয়। দুইটি রিকশা অতিক্রম করতে পারে। কিন্তু ছোট গাড়ি কোনো রকম পার হতে পারে। নেই দুই পাশে রেলিং, পিলারের ইট খসে পড়ছে। সেতুর মাঝখান থেকে কিছু অংশ ভেঙে পড়ে গেছে। একটি বাঁশের টুকরায় লাল কাপড় বেঁধে বিপদ সংকেত দেওয়া আছে। এই সেতুর ওপর দিয়েই দুই এলাকার স্কুল, কলেজ, মাদরাসার ছাত্রছাত্রীসহ হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে প্রতিদিন। বিভিন্ন সময় নির্বাচনের আগে প্রার্থীগণ সেতুটি নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিলেও আজো কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। সেতুটি নির্মাণের দাবিতে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) উপজেলা কমিউনিস্ট পার্টির উদ্যোগে এক মানববন্ধনের ডাক দেওয়া হয়। দুই এলাকার সাধারণ মানুষ এতে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেন। এটি নাগরিক মানববন্ধনে রূপ নেয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি আবদুর রহমান রুমি, সাবেক সভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, কমরেড সেলিম উদ্দিন খান, মস্তোফা কামাল নান্দু, মুর্শেদ খান নতুন, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন রানা, স্থানীয় ব্যক্তি আক্কাছ মিয়া, ইসলাম উদ্দিন, মো. মতিউর রহমান, এবাদুল্লাহ ও সজল মিয়া প্রমুখ।

বক্তাগণ বলেন, অল্প কিছু দিন পরই শাহ শামছুদ্দিন সুলতাল বোখারির (র.) উরস হবে। উরস উপলক্ষে বিশাল মেলা জমে। হাজার হাজার মানুষ এ সেতু দিয়ে যাতায়াত করে। কোনো দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে সে লক্ষ্যে এর আগেই সেতুটি নির্মাণের দাবি জানান।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান বলেন, সেতুটি নির্মাণের আর্থিক ও কারিগরি সক্ষমতা উপজেলা পরিষদের হাতে নেই। তবে এলাকার মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য দ্রুত এটি নির্মাণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close