নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৮ আগস্ট, ২০২২

যানজটে নাকাল নগরবাসী

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজপথে নিজেদের শক্তির জানান দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলা দিবস উপলক্ষে রাজধানীসহ সারা দেশে সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী-সমর্থকদের উপস্থিতি তাই প্রমাণ করে।

রাজধানীতে ক্ষমতাসীনদের এই কর্মসূচি সফল করতে দুপুর ১টা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন ইউনিট ও আশপাশের এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে রমনায় আসতে শুরু করে। সহযোগী সংগঠনগুলোর অংশগ্রহণও ছিল চোখে পড়ার মতো। যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, শ্রমিক লীগ, তাঁতী লীগ, মৎসজীবী লীগ ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা ছাড়াও ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ নেতাকর্মীরাও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের এ কর্মসূচিতে মিছিল নিয়ে যোগ দেন। এর ফলে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীর রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনের এলাকা কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। বিকাল ৩টার পর সমাবেশ শুরু হয়ে চলে প্রায় সাড়ে ৫টা পর্যন্ত। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল মৎস্য ভবন, কদম ফোয়ারা, জিরো পয়েন্ট হয়ে গুলিস্তানের দলীয় কার্যালয়ে শেষ হয়।

সপ্তাহের কর্মদিবসে ব্যস্ততম সড়কে দীর্ঘ ৫ ঘণ্টার এই কর্মসূচি রাজধানীজুড়ে যানজটের চরম আকার ধারণ করে মৎস্য ভবন ও শাহবাগ হয়ে গন্তব্যে যাওয়া পরিবহনকে অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হতে হয়েছে। শুধু রাজধানী নয় এর প্রভাব পরে রাজধানীর আশপাশে বিভিন্ন এলাকায়। ২ ঘণ্টা থেকে শুরু করে ৪/৫ ঘণ্টা জ্যামে বসে থাকতে অফিস থেকে বাসাগামী মানুষদের। প্রভাব রাজধানীর অন্য সড়কগুলোতেও পড়েছে। যার কারণে বিকালে অফিস ফেরত লোকজন পড়েছেন চরম দুর্ভোগে। তারা ঘরে ফিরতে যানজটে নাকাল হয়েছেন।

শাহবাগ থেকে গুলিস্তান যাবেন যেতে বাসে উঠেছিলেন যাত্রী আবুল কালাম আজাদ। কিন্তু যানজটে বসে থেকে একসময় হেঁটেই রওনা হন তিনি। তিনি বলেন, ‘বাধ্য হয়ে এত রাস্তা হেঁটে যেতে শুরু করেছি। আসলে এসব বিষয় নিয়ে এখন আর কিছুই বলার নাই আমাদের। তিনি জানান, গুলিস্তান থেকে দোহার যাবেন তিনি, জরুরি কাজ থাকায় হাঁটতেই হচ্ছে।

সমাবেশ চলাকালে কাকরাইল মোড়ে কথা হয় রিকশাচালক আবদুর রশিদের সঙ্গে। তিনি মালিবাগ থেকে যাত্রী নিয়ে যাবেন চকবাজার। তিনি বলেন, ‘মালিবাগ থেকে কাকরাইল মোড়ে আসতে যানজটের কারণে ১ ঘণ্টা লেগেছে। এত সময়ে চকবাজার চলে যেতে পারতাম। কিন্তু এখনো কাকরাইলে পড়ে আছি।’

মালিবাগ থেকে রিকশায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি যাবেন সরকার মাসুদ। তিনিও জানান, তীব্র যানজটে পড়তে হয়েছে তাকে। যার কারণে তার ১ ঘণ্টা লেগেছে। যানজটে অনেক ভোগান্তি হয়েছে। এদিকে মালিবাগ, মগবাজার ও বাড্ডা এলাকাতে গাড়ি না থাকায় সড়কের পাশে শত শত মানুষ দাঁড়িয়ে ছিল। যে কয়েকটি গাড়ি চলেছে, সেগুলোতেও ছিল উপচে পড়া ভিড়। পল্টন এলাকায় ভোগান্তিতে পড়েন অফিস ফেরত সাধারণ মানুষ।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close