প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১৩ অক্টোবর, ২০২১

বাংলাদেশে হামলার পরিকল্পনা

অস্ট্রেলিয়ায় ৫ বছরের জেল আইএস জঙ্গির

বাংলাদেশে জঙ্গি হামলা পরিচালনার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী এক বাংলাদেশিকে পাঁচ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার আদালত। সাড়ে পাঁচ বছরের বেশি সময় আগে অভিযুক্তকে সিডনি বিমানবন্দর থেকে ক্যামোফ্লেজ পোশাক, ট্যাকটিকাল বুট ও বোমা বানানোর নির্দেশনামূলক বইসহ আটক করা হয়।

অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম সিডনি হেরাল্ডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত নওরোজ রায়েদ আমিন (৩০) ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সক্রিয় সমর্থক ছিলেন। ২০১৫ সালের মে এবং ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি ফেসবুকে বাংলাদেশ ভ্রমণে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে আলাপ করেন দুজনের সঙ্গে।

রায়েদ ২০১৬ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করেন। তাকে সিডনি বিমানবন্দরে ট্যাকটিকাল বুট জুতা পরা অবস্থায় আটক করা হয়। তল্লাশিতে তার ব্যাগ থেকে পেনড্রাইভ, তিন জোড়া ক্যামোফ্লেজ ট্রাউজার, মিক্সড মার্শাল আর্টে ব্যবহারোপযোগী এক জোড়া গ্লাভস এবং বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার মুদ্রা পাওয়া যায়। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা পেনড্রাইভে জঙ্গিবাদ সংক্রান্ত নানা উপকরণ পাওয়া যায়। যার মধ্যে ছিল, আইএসের অনলাইন ম্যাগাজিনের ১০টি সংখ্যা, সামরিক ঘাঁটিতে গাড়ি বোমা বিস্ফোরণ ঘটানোর কৌশল বর্ণনাসহ একটি অনলাইন প্রকাশনা এবং ২৪১ পৃষ্ঠার বোমা বানানোর নির্দেশিকা ‘দ্য অ্যানার্কিস্ট কুকবুক’। এ ছাড়াও পেনড্রাইভে মানুষকে হত্যা করা ও আত্মঘাতী বোমা হামলার ভিডিও ছিল।

রায়েদ সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর কর্মকর্তাদের কাছে বলেন, এই উপকরণগুলো তিনি তার বাংলাদেশে অবস্থানরত চাচাতো ভাইকে দেখাবেন, যাতে সে আইএসে যোগ দেওয়া থেকে নিবৃত্ত হয়। তবে রায়েদকে সেই ফ্লাইটে উঠতে দেওয়া হয়নি। পরবর্তী সময়ে তার পাসপোর্ট বাতিল করা হয়।

এর প্রায় দুই বছর পর ২০১৮ সালের জুন মাসে তাকে সিডনির দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত ইঙ্গলবার্নের বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে জঙ্গি হামলার প্রস্তুতি অথবা পরিকল্পনা করা এবং জঙ্গি কার্যক্রমকে উৎসাহিত করতে পারে এমন উপকরণ স্বেচ্ছায় রপ্তানি করার প্রচেষ্টার অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close