নিজস্ব প্রতিবেদক

  ০১ মার্চ, ২০২১

উত্তরা-আগারগাঁওয়ে দৃশ্যমান মেট্রোরেল

রাজধানীর উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত দৃশ্যমান হলো স্বপ্নের মেট্রোরেল। প্রথম ধাপের শেষ ভায়াডাক্ট বসানোর মধ্য দিয়ে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত যুক্ত হলো। মেট্রোরেলের প্রথম ট্রেন আগামী এপ্রিলে দেশে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। ফলে আগামী জুলাই থেকে শুরু হতে পারে মেট্রোরেলের ট্রায়াল রান। আর আসছে বিজয় দিবসেই উদ্বোধনের লক্ষ্য নিয়ে চলছে কাজ। গতকাল রবিবার সকাল ১১টা ২০ মিনিটের দিকে ৩৭৫ ও ৩৭৬ পিলারের ওপর এই ভায়াডাক্টটি বসানো হয়।

মেট্রোরেল পাঁচের আওতায় এ অংশে মোট স্প্যান ৪৬৭টি। যার মধ্যে সেগমেন্ট গার্ডার ৫ হাজার ১৫২টি। ডাবল লাইনসহ ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার অ্যালাইনমেন্টে ভায়াডাক্ট তৈরি হয়েছে প্রায় সাড়ে ১৪ কিলোমিটার। উত্তরা থেকে আগারগাঁও এ অংশে স্টেশন হবে ৯টি। যার মধ্যে প্রথম তিনটির যেখানে ট্রায়াল রান হবে, সেখানে কাজ এগিয়ে চলছে।

------
দেশের প্রথম মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন সিদ্দিকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ সময় ছিলেন।

এম এ এন সিদ্দিক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এই মুহূর্তটি আমাদের জন্য খুবই আনন্দের।’ মেট্রোরেলের প্রথম ধাপ ডিসেম্বরে শুরু হতে পারে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দেশে মেট্রোরেল আসার পর জানানো হবে। মেট্রোরেল আগামী এপ্রিলে আসতে পারে।’

এম এ এন সিদ্দিক আরো বলেন, ‘উত্তরা, দিয়াবাড়ী থেকে শুরু করে আগারগাঁও পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ের সর্বশেষ ভায়াডাক্ট উত্তোলন করা হয়েছে। আমাদের এখন পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ের অগ্রগতি হয়েছে ৮১ দশমিক ৩৮ শতাংশ। আমাদের এখনো প্রায় ১৯ শতাংশ কাজ বাকি আছে। এই কাজগুলো দিনে এক শিফট এবং রাতে শিফট মোট দুই শিফটে চালু আছে।’

সাবেক এই সচিব বলেন, ‘প্যাকেজ-৬-এর কাজ ২০১৮ সালের ১ আগস্ট শুরু হয়। বর্তমানে এ অংশে পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোয়িং, ট্রায়াল, ট্রেঞ্চ, টেস্ট পাইল ও স্থায়ী বোরড পাইল সম্পন্ন হয়েছে। ১৬০টি পিয়ার কলাম এর মধ্যে ১৪৮টি পিয়ার কলাম সম্পন্ন হয়েছে। ২৯৮টি পাইল ক্যাপের মধ্যে ১৯০টি পাইল ক্যাপ সম্পন্ন হয়েছে। ১৩৬টি পিয়ার হেডের মধ্যে ১২৬টি সম্পন্ন হয়েছে এবং ১৭৬টি প্রকাস্ট সেগমেন্টের মধ্যে ৯৯৮টি সেগমেন্ট কাস্টিং সম্পন্ন হয়েছে।’

সিদ্দিক জানান, ৪ হাজার ৯৪৬টি প্যারাপেট ওয়ালের মধ্যে ৩৩০টি প্যারাপেট ওয়াল সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও মতিঝিল স্টেশনের সাব স্ট্রাকচার নির্মাণকাজ অব্যাহত রয়েছে। মোট ১৫৪টি স্টেশন কলামের মধ্যে ৩২টি স্টেশন কলাম সম্পন্ন হয়েছে। মোট ৯টি পোর্টাল বিমের মধ্যে দুটি নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে।

২০১২ সালের ১৮ ডিসেম্বর সরকারের অন্যতম অগ্রাধিকার ঢাকা মাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট তথা মেট্রোরেল প্রকল্প জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে (একনেক) অনুমোদন দেওয়া হয়। এ প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয় ২১ হাজার ৯৮৫ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে প্রকল্প সহায়তা হিসেবে জাইকা দেবে ১৬ হাজার ৫৯৪ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। সম্প্রতি পরিকল্পনামন্ত্রী বলেছেন মেট্রোরেলের প্রথম ধাপ উত্তরা থেকে আগারগাঁও আগামী ডিসেম্বরে চালু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close