সিলেট প্রতিনিধি

  ৩০ নভেম্বর, ২০২০

তদন্ত প্রতিবেদন

রায়হানের মৃত্যু আঘাতেই

‘দুটি পাতা দুটি কুঁড়ির দেশ’ সিলেটের ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠী মণিপুরী সম্প্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় ও ঐতিহ্যবাহী উৎসব মহারাসলীলা আজ। রাস উৎসবের শুরু বলতে গেলে বিজয়া দশমীর পর যে পূর্ণিমা আসে তখন থেকেই। বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতির কারণে ঐতিহ্যবাহী এই উৎসব এবার সীমিত পরিসরে হচ্ছে কমলগঞ্জের মাধবপুর ও আদমপুরে। মাধবপুর জোড় ম-পে পূর্ণ হচ্ছে ১৭৮তম রাস উৎসব। মণিপুরী বিষ্ণুপ্রিয়া ও মণিপুরী মৈতৈ সম্প্রদায় আলাদা স্থানে আয়োজন করলেও উৎসবের অন্তস্রোত, রসের কথা, আনন্দ-প্রার্থনা সবই একই। উৎসবের ভেতরের কথা হচ্ছে বিশ্বশান্তি, সম্প্রীতি ও সত্যসুন্দর মানবপ্রেম।

রাসমেলার আয়োজক হচ্ছে মণিপুরী মহারাসলীলা সেবা সংঘ ও মণিপুরী বিষ্ণুপ্রিয়া সম্প্রদায়।

------
আজ দুপুরে উৎসবস্থল মাধবপুরের শিববাজার উন্মুক্ত মঞ্চে হবে গোষ্ঠলীলা বা রাখাল নৃত্য। রাতে জোড়াম-পে রাসের প্রাণ মহারাসলীলা। রাতভর রাধাকৃষ্ণের প্রণয়োপাখ্যানের সে রাসলীলা উপভোগ করতে সারা দেশ থেকে ছুটে আসেন হাজারো নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর, কবি-সাংবাদিক, দেশি-বিদেশি পর্যটকসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। তুমুল হইচই, আনন্দ-উৎসাহ, ঢাক-ঢোল, খোল-করতাল আর শঙ্খ ধ্বনির মধ্য দিয়ে হিন্দু ধর্মের অবতার পুরুষ শ্রী কৃষ্ণ ও তার সখী রাধার লীলাকে ঘিরে এই একটি দিন বছরের আর সবদিন থেকে ভিন্ন আমেজ নিয়ে আসে কমলগঞ্জবাসীর জনজীবনে।

অন্যদিকে মণিপুরী মৈতৈ সম্প্রদায় আয়োজনে আদমপুরে পাশাপাশি দুটি স্থানে হচ্ছে রাস উৎসব হচ্ছে। আদমপুর জোড়াম-প ও মণিপুরী কালচারেল কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে। এখানেও থাকছে যথারীতি রাখাল নৃত্য ও রাসলীলা। তবে মণিপুরী বিষ্ণুপ্রিয়া ও মণিপুরী মৈতৈ সম্প্রদায় আলাদা স্থানে আয়োজন করলেও উৎসবের অন্তস্রোত, রসের কথা, আনন্দ-প্রার্থনা সবই একই। উৎসবের ভেতরের কথা হচ্ছে বিশ্বশান্তি, সম্প্রীতি ও সত্যসুন্দর মানবপ্রেম।

মণিপুরী মহারাসলীলা সেবা সংঘের সাধারণ সম্পাদক শ্যাম সিংহ বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। আমাদের কাছে হেমন্তকাল মানেই রাস-পূর্ণিমা, রাস উৎসব। কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক ও কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, আয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে নিরাপত্তার জন্য দুই জায়গাতেই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তবে এ বছর করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে রাসলীলা হবে। মেলার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

 

 

"

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়